আইপিএলের ফ্লপ একাদশে আছেন যারা

আইপিএল সদ্য শেষ হয়েছে। এরপরই টুর্নামেন্টটির সেরা একাদশ প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ। সে দলে জায়গা হয়নি অনেক ভারতীয় সেরা তারকার। তবে যাঁদের নিয়ে প্রচুর আশা ছিল, তাঁদের মধ্যে অনেকেই সেই অর্থে সাড়া জাগাতে পারেননি।

তাদের নিয়েই আইপিএলের ফ্লপ একাদশ সাজিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা। দেখে নেওয়া যাক সে একাদশে কে কে আছে।

পৃথ্বী শ: চলতি বছরে দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে খেলেছিলেন। ১৬টি ম্যাচে ৩৫৩ রান করেছেন, গড় ২২.০৬।

রবীন উথাপ্পা: কলকাতা নাইট রাইডার্সের সবচেয়ে বড় ভরসা ভাবা হয়েছিল তাঁকে। কিন্তু ১৪ ম্যাচে ২৮২ রান করেছেন তিনি। স্ট্রাইক রেট ছিল যাচ্ছে তাই।

আম্বাতী রাইডু: ১৭টি ম্যাচে ২৮২ রান করেছেন, গড় ২৩.৫০, সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর ৫৭। মিডল অর্ডারে চেন্নাই সুপার কিংসের অন্যতম ভরসা ছিলেন। তবে তিনি কিচুই করতে পারেননি।

বিজয় শঙ্কর: রয়েছেন বিশ্বকাপ দলে। কিন্তু আইপিএলে ধারাবাহিকতা ছিল না সানরাইজার্স হায়দরাবাদের এই ক্রিকেটারের। ১৫ ম্যাচে ২৪৪ রান করেছেন। গড় ২০.৩৩।

জয়দেব উনাদকাত: রাজস্থান রয়্যালসের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় তিনি। তবে ১১ ম্যাচে মাত্র ১০টি উইকেট পেয়েছেন, ইকনমি রেট ছিল ১০.৬৬।

বেন স্টোকস: রাজস্থানের এই অলরাউন্ডার ৯টি ম্যাচে ১২৩ রান করেছেন, ৬টি উইকেট পেয়েছেন। ইকনমি রেট ছিল ১১.২২।

কেদার যাদব: চেন্নাই সুপার কিংসে মিডল অর্ডারের হিরো ভাবা হয়েছিল তাঁকে, রয়েছেন বিশ্বকাপ দলেও। কিন্তু পারলেন না কেদার। ১৪টি ম্যাচ খেলে মাত্র ১৬২ রান।

উমেশ যাদব: রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে তিনি চরম ব্যর্থ এবার। ১১ ম্যাচে মাত্র ৮ উইকেট পেয়েছেন, ইকনমি রেট ৯.৮০।

অ্যান্ড্রু টাই: অস্ট্রেলীয় এই পেসার ২০১৮ সালের পার্পল ক্যাপ উইনার ছিলেন। কিন্তু চলতি বছরে ৬টি ম্যাচে ৩টি উইকেট নিয়েছেন শুধু।

মুজিবুর রহমান: কিন্তু কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে সেই অর্থে ভরসা দিতে পারলেন না এই আফগান। ৫টি ম্যাচে ৩ উইকেট পেলেন, ইকনমি রেট ১০.০৫।

কুলদীপ যাদব: কেকেআরের অন্যতম ভরসা ছিলেন চায়নাম্যান। কিন্তু ৯টি ম্যাচে মাত্র ৪টি উইকেট পেয়েছেন কুলদীপ, ইকনমি রেট ৮.৬৬।

মন্তব্য লিখুন :