ধোনি-ডি ককের চেয়েও এগিয়ে মুশফিক

ত্রিদেশীয় সিরিজে বুধবার আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ দল। আইরিশদের করা ২৯২ রান তাড়া করতে নেমে ৬ উইকেটে জয় পায় টাইগাররা। চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে এই ম্যাচে ৩৩ বলে পাঁচটি চারের সহায়তায় ৩৫ রান করে আউট হন মুশফিকুর রহিম।

এতেই অনন্য এক রেকর্ডে নাম লেখান ছোটখাটো গড়নের এই ক্রিকেটার। ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সেরা পাঁচ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের তালিকায় ঢুকে গেছেন মুশফিক।

ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসের পঞ্চম উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে গতকাল ৫,০০০ রান পূর্ণ করেছেন মুশফিকুর রহিম। ২০৪ ম্যাচে মুশফিকের নামের পাশে লেখা আছে ৫,৫২২ রান। তবে উইকেটের পেছনে ছিলেন ১৭৮ ইনিংসে। গতকালের ৩৫ রান নিয়েই উইকেটরক্ষক হিসেবে খেলা ম্যাচগুলোতে ৫,০০০ হাজার রান পূর্ণ হয় তাঁর।

এই তো গেল রেকর্ডের কথা, এবার আসা যাক তার পারফর্মে। ২০১৭ সালের মে থেকে এ বছরের মে পর্যন্ত দুই বছরে মুশফিক রান করেছেন ৫৪.৩৮ গড়ে। তার ঠিক পেছনেই আছেন জনি বেয়ারস্টোর। এই ব্যাটসম্যানের গড় ৫৩.৩৯। এছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার ডি কক ৪৯.৫৮, ভারতের মহেন্দ্র সিং ধোনি ৪৫.৯৬ এবং জিম্বাবুয়ের ব্রেন্ডন টেলর রান করেছেন ৪০.৮৬ গড়ে। হে হিসেবে বর্তমান সময়ে মুশফিককে বিশ্বের সেরা উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান বলাই যায়।

এদিকে, ওয়ানডে ইতিহাসে মোট চারজন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান পাঁচ হাজার বা এর বেশি রান করতে পেরেছেন। তালিকায় সবার ওপরে আছেন শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান কুমারা সাঙ্গাকারা। উইকেটরক্ষক হিসেবে খেলা ৩৩৯ ওয়ানডে ম্যাচে ৪৩.৬৩ গড়ে ১৩,২৬২ রান করেছেন সাঙ্গাকারা। দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক এবং উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মহেন্দ্র সিং ধোনি। ২৮৯ ম্যাচে ৫০.৭২ গড়ে ১০,৫০০ রান আছে এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের।

সেরা উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের এই তালিকার তিন ও চার নম্বরে আছেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডাম গিলক্রিস্ট ও জিম্বাবুয়ের অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার।

মন্তব্য লিখুন :