গার্দিওলার অধীনে অবিশ্বাস্য ইতিহাস গড়ল ম্যানসিটি

লিগ কাপ ও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের পর এফএ কাপের শিরোপাও ঘরে তুললো ম্যানচেস্টার সিটি। সেই সঙ্গে প্রথম ক্লাব হিসেবে এক মৌসুমে ইংলিশ ফুটবলের তিনটি প্রতিযোগিতারই  চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কীর্তি গড়ল পেপ গুয়ার্দিওলার শিষ্যরা।

চ্যাম্পিয়নস লিগে কখনও কোয়ার্টার ফাইনালের বাধা পার হতে না পারলেও পেপ গার্দিওলার হাত ধরে ইংলিশ ফুটবলে অভূতপূর্ব অর্জন করলো সিটি। এই ইতিহাস গড়ার পথে শনিবার এফএ কাপের ফাইনালে ৬-০ গোলে তারা বিধ্বস্ত করেছে ওয়াটফোর্ডকে।

শুরুতে একাধিক সুযোগ তৈরি করেছিল ওয়াটফোর্ড। ১১ মিনিটে জেরার্দ দেউলোফেউ ডান দিকে ঢুকে বল পাঠান পেরেইরার কাছে, তার জোরালো শট দারুণ দক্ষতায় রুখে দেন ম্যানসিটি গোলরক্ষক এদারসন।

ম্যাচের ২৬তম মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ পেয়েই এগিয়ে যায় সিটি। রাহিম স্টার্লিংয়ের হেডে বাড়ানো বল পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় কোনাকুনি শটে জাল খুঁজে নেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার দাভিদ সিলভা। বল এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে ভিতরে ঢোকে।

৩৮ মিনিটে বের্নার্দো সিলভার পাস থেকে গোলমুখে বল ঠেলে দেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস, কিন্তু লাইন পার হওয়ার আগেই বল ঠেলে জালে জড়ান স্টারলিং।

দ্বিতীয়ার্ধে পাত্তাই পায়নি ওয়াটফোর্ড। ৫৫ মিনিটে রিয়াদ মাহরেজের বদলি নামেন কেভিন ডি ব্রুইন। বেলজিয়ান তারকা ৬ মিনিট পর নাম লিখেন গোলদাতার খাতায়। গোলটি বানিয়ে দেওয়ার পর জেসুসও লক্ষ্যভেদ করেন ৬৮ মিনিটে।

শেষ দিকে ছয় মিনিটের ব্যবধানে আরও দুবার জালে বল পাঠিয়ে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন স্টার্লিং। বাঁ দিক থেকে বের্নার্দো সিলভার দূরের পোস্টে বাড়ানো বল প্লেসিং শটে জালে জড়ান স্টার্লিং। ৮৭তম মিনিটে তার প্রথম শট ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক, তবে বিপদমুক্ত করতে পারেননি। বল পোস্টে লেগে ফিরে আসলে ছুটে গিয়ে লক্ষ্যে পাঠান মৌসুম জুড়ে দুর্দান্ত খেলা স্টার্লিং।

মন্তব্য লিখুন :