বিশ্বকাপে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ৫ ওপেনিং জুটি

কড়া নাড়ছে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। আর মাত্র ৭ দিন পর ইংল্যান্ডে বসছে ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ আসর। এবারের বিশ্বকাপ হবে রাউন্ড রবিন পদ্ধতিতে। বিশ্বকাপে অংশ নেয়া দশটি দল প্রথম রাউন্ডে খেলবে একে অপরের বিরুদ্ধে। সেখান থেকে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা চারটি দল চলে যাবে সেমিফাইনালে।

বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ইতোমধ্যেই সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে ১০ দল। ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তান ইংল্যান্ড পৌঁছে গেছে। এ সপ্তাহের মধ্যে বাকি দলগুলোও পৌঁছে যাবে ইংল্যান্ড। তার আগে দেখে নেওয়া যাক এক বিশ্বকাপে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর পাঁচটি জুটি।

তামিম ইকবাল-সৌম্য সরকার: এই জুটি যে এবার বিশ্বকাপের বোলারদের কাপন ধরাচ্ছে তা বোঝা গেছে ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকেই। বিশ্বকাপের ঠিক আগ মুহূর্তে এই সিরিজে দুই ব্যাটসম্যঅনই দেখিয়েছেন তার দারুণ বোঝাপড়া। সৌম্য সরকার যেখানে মারমুখি হয়ে খেলেছেন সেখানে তামিম খেলেছেন ধীরেসুস্থে। এই দুইজনের ব্যাচে চড়ে শিরোপাও জিতে নিয়েছে টাইগাররা। তিনটি ম্যাচে প্রথম জুটিতে তাদের কাছ থেকে এসেছে একটি শতক ও একটি অর্ধশতক। এছাড়া দুই ব্যাটসম্যান মিলে তুলে নিয়েছেন পাঁচটি অর্ধশতক।

জেসন রয়-জনি বেয়ারস্টো: ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ জিততে মরিয়া ইংল্যান্ড। জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টোই সেরা ওপেনিং জুটি দলের ক্ষেত্রে। ৫৭ গড় রয়েছে তাঁদের। মোট রান ১৭৬২। ৩০টি ইনিংসে, সাতটি সেঞ্চুরি, আটটি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। মাত্র ৩০ ইনিংসে ১৫ বারেরও বেশি ৫০ বা তার বেশি রান করেছে এই জুটি। সর্বশেষ সিরিজে তাদের রয়েছে দুইটি শতরানের জুটি। এই দুই ব্যাটসম্যানের ব্যাটেই ৩৫০ রানকেও মামুলি বানিয়ে ফেলেছেন তারা। বিশ্বকাপেও যে সেটা অব্যাহত থাকবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।

ক্রিস গেইল-এভিন লুইস: ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওপেনিং জুটি তারা। তবে তেমন সফল নয় এই জুটি। মোটে ৩৮৩ রান রয়েছে তাঁদের জুটিতে। গড় মাত্র ৩০। যদিও নিজেদের দিনে যে কোনও বোলিং আক্রমণ সামলাতে সফল তাঁরা। তাই এঁদের বিকল্প এখনও ভাবেনি দল। তাছাড়া দু’জনই মারকুটে। তারা যেদিন জ্বলবে সেদিন ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয় নিশ্চিত তাতে কোনো সন্দেহ নেই।

ডেভিড ওয়ার্নার-অ্যারন ফিঞ্চ: অস্ট্রেলিয়ার বিস্ফোরক জুটি তারা। খুব সম্ভবত এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর জুটি হতে যাচ্ছেন তারাই। কারণ দু’জনই আছেন ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে। ২০১৪ থেকে এক সঙ্গে খেলছেন। ২১২৬ রান করেছেন দু’জনে। ৪৪ গড়। পাঁচটি সেঞ্চুরি, দশটি হাফ সেঞ্চুরিও রয়েছে। সর্বোচ্চ রান এই জুটির ক্ষেত্রে ২৩১। যদিও ওয়ার্নার ১ বছর ধরে তার সাথে খেলছেন না। তবে এই তারকা আইপিএলে যে ফর্ম দেখিয়েছেন তা ধরে রাখতে পারলে বোলারদের ভালো ঘামই ঝড়বে।

রোহিত শর্মা-শিখর ধাওয়ান: ভারতের সর্বকালের সেরা ওপেনিং জুটি তারা। ২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফি থেকে এই জুটিকে সেরা বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ১০৩ ইনিংসে রোহিত-ধাওয়ান ৪৫৮৬ রান করেছেন। গড় ৪৫। পার্টনারশিপে সর্বোচ্চ ২১০ রান করেছেন তাঁরা। তবে সাম্প্রতিক সময়ে রোহিত খুব একটা ফর্মে নেই। কিন্তু দুইটি ডাবল সেঞ্চুরি করা তারকা ফর্মে ফিরবেন বলেই সকলের আশা।

মন্তব্য লিখুন :