ফিঞ্চের সেঞ্চুরির পরও ইংল্যান্ডের সামনে মাঝারি লক্ষ্য

অ্যারন ফিঞ্চের সেঞ্চুরি আর ডেভিড ওয়ার্নারের হাফসেঞ্চুরির পরও ইংল্যান্ডের সামনে বড় স্কোর দাঁড় করাতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। অজিরা ৫০ ওভার খেলে ৬ উইকেট হারিয়ে তুলেছে মাত্র ২৮৫ রান। সেমির স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে ইংলিশদের চাই এখন ২৮৬ রান।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ওপেনিং জুটিতেই অজিরা তুলেছে ১০০ রান। তারা সময় নেন মাত্র ২০ ওভার। দল যখন বড় রানের দিকে এগুচ্ছিল তখনই দলীয় ১২৩ রানের মাথায় ওয়ার্নার আউট হন হাফসেঞ্চুরি করে।

এরপর উসমান খাজা মাত্র ২৩ রান করে আউট হন। তবে অপর ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ জুটি গড়ে তোলেন স্টিভ স্মিথকে নিয়ে। তবে এই জুটিও বেশি দূর এগুতে পারেনি জফরা আর্চারের কারণে। ৩৬তম ওভারে এসে এই বোলার তুলে নেন মাত্র সেঞ্চুরি পূরণ করা ফিঞ্চকে। তখন অজিদের রান ছিল ১৮৫।

ফিঞ্চকে হারানোর পর রান বাড়ানোর চেষ্টা করেন ম্যাক্সওয়েল। তবে তা আর হলো কই। ৮ বলে ১২ রান করে বিদায় নেন তিনিও। এরপর দলীয় ২২৮ রানের মাথায় ফেরেন মার্কাস স্টোইনিসও।

এতে বেশ বিপাকেই পড়ে অস্ট্রেলিয়া। বিপত্তিটা আরেকটু বাড়িয়ে দেন ক্রিস ওকস। হাত খুলে যখনই স্মিথ মারছিলেন ঠিক তখন তাকে সাজঘরের পথ দেখান। তার আগে অবশ্য ৩৪ বলে ৩৮ রান করেন স্মিথ। এরপর প্যাট কামিন্স দ্রুত বিদায় নিলেও শেষদিকে ঝড় তুলেন অ্যালেক্স ক্যারি। এই উইকেটকিপারের ২৭ বলে ৩৫ রানের ইনিংসে ভর করে শেষ পর্যন্ত ২৮৫ রান তুলতে সক্ষম হয় অজিরা।

১০ ওভারে ৪৯ রান দিয়ে সর্বোচ্চ দুইটি উইকেট নেন ক্রিস ওকস।

৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে তারা তালিকার দুই নাম্বারে অস্ট্রেলিয়া। সমান ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে ইংল্যান্ড চারে। এই ম্যাচের দিকে নজর থাকবে বাংলাদেশেরও। কারণ সেমিতে যেতে হলে ইংল্যান্ডের হারের দিকে চেয়ে থাকতে হবে বাংলাদেশকে।

মন্তব্য লিখুন :