বাংলাদেশ জিতেছে, তবে দুর্বলতা থেকেই গেছে

প্রস্তুতি ম্যাচে জয়-পরাজয় খুব বেশি তাৎপর্যপূর্ণ নয়। প্রস্তুতি ম্যাচ মানেই নিজেদের ভুলগুলো চিহ্নিত করার ম্যাচ। সেটি শুধরে নামতে হয় মূল লড়াইয়ে। তবে প্রস্তুতি ম্যাচে যদি আসে জয়, সেটি অবশ্যই আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেয় অনেকখানি।

আজ শ্রীলঙ্কা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশকে হেসেখেলে হারিয়ে সেই আত্মবিশ্বাস নিয়েই শুক্রবার তিন ম্যাচের সিরিজ খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে শানাকার তাণ্ডবে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৮২ রান তুলে লঙ্কান বোর্ড একাদশ। জবাবে মোহাম্মদ মিথুনের ৯১ রানের সুবাদে ১১ বল আর ৫ উইকেট হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় টাইগাররা।

এমন ম্যাচেও রয়ে গেছে আক্ষেপ। খুব কাছে গিয়েও সেঞ্চুরি মিস করেছেন মোহাম্মদ মিথুন। অথচ তার কাছে সহজ সুযোগ ছিল সেঞ্চুরি করার।

তাছাড়া বাংলাদেশের শুরুটা মোটেই ভালো ছিল না। বিশ্বকাপের মতো তামিম-সৌম্য ব্যর্থতা ধরে রাখেন শ্রীলঙ্কা সফরেও। একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে তাদের ওপেনিং জুটি থেকে আসে মাত্র ৪৫ রান। সৌম্য সরকার ২৪ বলে ১৩ রান করে লাহিরু কুমারার বলে আপানসোর হাতে ক্যাচ দিলে ভাঙে জুটি।

এরপর দ্রুত বিদায় নেন তামিম ইকবালও। এই ব্যাটসম্যানও শিকার হন লাহিরু কুমারার। তবে দলীয় ৫৮ রানের মাথায় যখন তিনি আউট হন নিজের সংগ্রহ ছিল ৪৭ বল ৩৭।

শেষ দিকে ভালো হয়নি বাংলাদেশের বোলিংও। ৩২ রানে ৩ উইকেট পড়ে গিয়েছিল শ্রীলঙ্কা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের। ১৯৫ রানে ৭ উইকেট হারানো বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশকে যেখানে অলআউট করার সুযোগ, সেখানে তারা ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে তুলে ফেলে ২৮২ রান। শেষ ৩ ওভারেই লঙ্কানরা তুলেছে ৩৬ রান।

এটা অবশ্যই বাংলাদেশের জন্য অশনি সংকেত। মূল ম্যাচের আগে এ সমস্যার সমাধান না করতে পারলে ভালো ফলাফল করা কঠিনই হবে।

মন্তব্য লিখুন :