ট্রান্সফার: রিয়াল মাদ্রিদ কিনেছে যাদের, ছেড়েছে যাদের

জমে উঠেছে ইউরোপের ফুটবলের গ্রীস্মের দলবদল। প্রত্যেক দলই নেমে পড়েছে তাদের পছন্দের ফুটবলারকে দলে ভেড়াতে। এবারের ট্রান্সফারের মৌসুমটা বেশ সিরিয়াসলি নিয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে দামি ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ। এর কারণ তাদের গত মৌসুমের পারফর্ম।

২০১৮-১৯ মৌসুমের শুরুতেই রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। দলের সেরা তারকাকে হারিয়ে মৌসুমে যাচ্ছে তাই পারফর্ম করেছে গ্যালাকটিকোরা। কোনো শিরোপা তো তারা জিততেই পারেনি উল্টো বিদায় নিতে হয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ১৬ থেকে।

লা লিগায় তৃতীয় হতে হয়েছে তাদের। সেই সাথে গত ২০ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ হারের রেকর্ড গড়েছে। এছাড়া একটানা ৫ ম্যাচে গোলশূন্য ছিল তারা। এ থেকেই কোচ রিয়ালের কর্মকর্তারা বুঝেছেন এ দল নিয়ে শিরোপা তো দূরের কথা সম্মান বাঁচিয়ে রাখাই কঠিন।

যে কারণে এবার দলবদলের শুরুতেই তাদের দৌড়ঝাপ লক্ষ্য করা গেছে। ইতোমধ্যেই রিয়াল বেশ কয়েকজন তারকাকে দলে ভেড়াতে সক্ষম হয়েছে। যাদের পেছনে খরচ হয়েছে ৩০০ মিলিয়ন ইউরো। বাংলাদেশি টাকায় হিসাব করতে গেলে ২৫৯০ কোটি টাকারও বেশি।

এ জন্য অবশ্য তাদের ছেড়েও দিতে হয়েছে দীর্ঘদিন ধরে দলে থাকা কয়েকজন তারকাকে। সেখানে এমন কিছু নামও আছে যারা কিনা দীর্ঘদিন ধরে খেলছেন রিয়ালে।

রিয়াল মাদ্রিদ কিনেছে যাদের: ফারল্যান্ড মেন্ডি-ডিফেন্ডার (লিও-৪৮ মিলিয়ন), এডেন হ্যাজার্ড-স্ট্রাইকার (চেলসি-১০০ মিলিয়ন), হোসে কুবো (টোকিও-১৪ মিলিয়ন), রদ্রিগো-স্ট্রাইকার (সান্তোস-৫৮ মিলিয়ন), লুকা জভিচ-স্ট্রাইকার (ফ্রাঙ্কফুট-৬০ মিলিয়ন), মার্টিন ওডেগার্ড-উইঙ্গার (ভিতাসে-১৪ মিলিয়ন), লুকাস সিলভা -ডিফেন্ডার (ক্রুইজেরা-প্রি ট্রান্সফার)।

ছেড়েছে যাদের: মাতেও কোভাসিচ-মিডফিল্ডার, মার্কাস লরেন্তে-ডিফেন্ডার, দানি কাবালোস-ডিফেন্ডার, জর্জি প্রুটোস-স্ট্রাইকার, মার্টিন ওডেগার্ড-উইঙ্গার, থিও হার্নান্দেজ-লেফট ব্যাক, রাউল ডি টমাস-ডিফেন্ডার।

মন্তব্য লিখুন :