ফাইনালে যে একাদশ নিয়ে নামতে পারে দুই দল

বিশ বছর পর ক্রিকেট মক্কায় ফের বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপের আসর৷ প্রথমবার বিশ্বজয়ের স্বাদ পেতে লর্ডসের বাইশ গজে লড়াই ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের৷ এর আগে বিশ্বকাপ ফাইনালে খেললেও ট্রফি জেতেনি দুই দেশ৷ তবে প্রথমবার বিশ্বকাপ ফাইনালে মুখোমুখি ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড৷ ১৯৯৯-এর পর লর্ডসে বিশ্বকাপের ফাইনাল৷

২০১৫ বিশ্বকাপ ফাইনাল খেললেও এমসিজি-র বাইশ গজে খেতাবের লড়াইয়ে আয়োজক অস্ট্রেলিয়ার কাছে হার মানে কিউয়িরা৷ এবারও নিউজিল্যান্ডের খেতাব জয়ের সামনে আরও এক আয়োজক দেশ৷ ইংল্যান্ডকে টেক্কা দিতে পারলে প্রথমবার বিশ্বজয়ের স্বাদ পাবে কিউয়িবাহিনী৷

শেষবার মেলবোর্নে পাকিস্তানের কাছে মাত্র ২২ রানে হারে গ্রাহাম গুচের ইংল্যান্ড৷ সেবারও ফেভারিট হিসেবেই ফাইনাল খেলতে নেমেছিল গুচের দল৷ রবিবারও লর্ডসে ফাইনালে ফেভারিট হিসেবে মাঠে নামবে মরগান অ্যান্ড কোং৷ লিগে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে সেমিফাইনালের ছাড়পত্র পেয়েছিল ইংল্যান্ড৷ ফাইনালে কি কিউয়িদের হারিয়ে বিশ্বসেরা হতে পারবে মরগানরা?

সেটা জানতে অপেক্ষা করতে হবে আরও সময়। তবে তার আগে দেখে নেওয়া যাক ফাইনালে খেলবে কোন ২২ জন।

যে পিচে খেলা হওয়ার কথা সেটা স্পোর্টিং পিচ। মানে ২৮০ থেকে ৩০০ রানের পিচ। এখানে মূল সুবিধাটা পায় ব্যাটসম্যানরা। তবে শুরুর দিকে তোপ থাকে পেসারদের। তাই এই ম্যাচে দুই দলের একাদশে কোনো পরিবর্তন আাসার সম্ভাবনা নেই। সেমির একাদশ নিয়েই নামবে দুই দল।

নিউজিল্যান্ডের সম্ভাব্য একাদশ: কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), মার্টিন গাপটিল, কলিন মুনরো, রস টেলর, টম লাথাম (উইকেটরক্ষক), জেমস নিশাম, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মিচেল সান্টেনার, ম্যাট হেনরি, লকি ফার্গুসন, ট্রেন্ট বোল্ট।

ইংল্যান্ড: ইয়ন মরগান (অধিনায়ক), জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট, বেন স্টোকস, জস বাটলার (উইকেটরক্ষক), ক্রিস ওকস, জফরা আর্চার, আদিল রশিদ, মার্ক উড, লিয়াম প্লাঙ্কেট।

মন্তব্য লিখুন :