ধর্ষণের কথা স্বীকার করলেন রোনালদো

২০০৯ সালে লাস ভেগাসের এক হোটেলের ঘরে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর দ্বারা ধর্ষণের শিকার হন মডেল ক্যাথরিন মায়োরগা। সেই অভিযোগ অস্বীকার করে রোনালদো জানান, পারস্পরিক সম্মতিতেই যৌন সংসর্গ হয়েছিল।

গত জুলাই মাসে লাস ভেগাস আদালত জানায়, পর্তুগিজ ফুটবলারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগের স্বপক্ষে যথেষ্ট প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাই এই মামলা থেকে তাকে রেহাই দেয়া হয়।

পরে রোনালদোর আইনজীবীরা জানিয়েছেন, ক্যাথরিনের সঙ্গে আগেই এ ব্যাপারে মিটমাট হয়ে গেছে। গোপন চুক্তিও হয়েছিল ২০১০ সালে ৩.৭৫ লাখ ডলারের বিনিময়ে।

তবে এই ঘটনায় রোনালদোর মা দোলোরেস বলেন, যাই হোক না কেন, আমার ছেলেকে আমি চিনি। তবে ও (ক্যাথরিন) নিশ্চয়ই রোনালদোর হোটেলে শুধু তাস খেলতে যায়নি। বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজকেও পাশে পেয়েছেন রোনালদো।

অবশেষে রোনালদো স্বীকার করে নিলেন ক্যাথরিনের মুখ বন্ধ রাখার জন্য মোটা অঙ্কের টাকা দিয়েছিলেন তিনি। এর মানে ধর্ষণের াভিযোগও তিনি স্বীকার করে নিলেন।

মন্তব্য লিখুন :