পাকিস্তান যাচ্ছেন না মালিঙ্গারা, যা বললেন শোয়েব আখতার

পাকিস্তান সফর থেকে প্রথম সারির শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের নাম প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘটনা মেনে নিতে পারছেন না পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররা। পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেওয়ার পরও লঙ্কান ক্রিকেটারদের নাম উঠিয়ে নেওয়াকে হতাশাজনক অ্যাখ্যা দিয়েছেন তারা।

টুইটারে একাধিক পোস্টে বুধবার হতাশা ছুঁড়ে দিয়েছেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস খ্যাত শোয়েব আখতার।

টুইটারে আখতার লেখেন, পাকিস্তান সফর থেকে যে সকল শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন তাদের কথা ভেবে হতাশ আমি। পাকিস্তান শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকে সবসময় সমর্থন জুগিয়ে এসেছে। সম্প্রতি ইস্টারে শ্রীলঙ্কায় সন্ত্রাসবাদী হামলার পর প্রথম আন্তর্জাতিক দল হিসেবে পাকিস্তান তাদের অনুর্ধ্ব-১৯ দলকে সেদেশে পাঠিয়েছিল।

তিনি লেখেন, ১৯৯৬ বিশ্বকাপের কথা কে ভুলতে পারে। অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজ যখন শ্রীলঙ্কায় তাদের দল পাঠাতে অস্বীকার করেছিল, পাকিস্তান তখন প্রীতি ম্যাচ খেলার জন্য ভারতের সঙ্গে তাদের দল পাঠিয়েছিল কলম্বোয়। আমরা সৌজন্য আশা করেছিলাম। তাদের ক্রিকেট বোর্ড এবিষয়ে সহযোগীতা করছে। ক্রিকেটারদেরও করা উচিৎ ছিল।

উল্লেখ্য, নিরোশান ডিকওয়েলা, কুশাল পেরেরা, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, থিসারা পেরেরা, আকিলা ধনঞ্জয়া, লাসিথ মালিঙ্গা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ, সুরঙ্গা লাকমল, দীনেশ চান্দিমাল এবং দিমুথ করুণারত্নে পাকিস্তান সফরের দল নির্বাচনের আগে নিরাপত্তার খাতিরে নিজেদেরকে সরিয়ে নেন।

বুধবার ঘোষণা অনুযায়ী প্রায় ক্লাব স্তরের দল নিয়েই পাকিস্তানের মাটিতে পা দেবে দ্বীপরাষ্ট্র। সেখানে ৩টি ওয়ানডে ও ৩টি টি-২০ ম্যাচ খেলবে তাঁরা। ঘোষিত দল অনুযায়ী ওয়ানডে সিরিজে শ্রীলঙ্কাকে নেতৃত্ব দেবেন লাহিরু থিরামান্নে ও টি-২০ সিরিজের জন্য দলনায়ক বেছে নেওয়া হয়েছে দাসুন শানাকাকে।

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কার টিম বাসে জঙ্গি হামলার পর এখনও অবধি জিম্বাবুয়ে ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছাড়া কোনো দলই পাকিস্তান সফর করেনি।

মন্তব্য লিখুন :