জাদেজা-শামির তোপে দক্ষিণ আফ্রিকার লজ্জা

প্রথম ইনিংসে দারুণ লড়াইয়ের পর রবীন্দ্র জাদেজা ও মোহাম্মদ শামির বোলিং তোপে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৯১ রানে অলআউট হয়েছে দক্ষিণ আপ্রিকা। ফলে ২০৩ রানে বিশাখাপত্তনম টেস্ট জিতে সিরিজে লিড নিয়েছে ভারত।

মায়াঙ্ক আগড়ারওয়ালের ডাবল সেঞ্চুরি আর রোহিত শর্মার ১৭৬ রানে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৭ উইকেটে ৫০২ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে ভারত। কেশব মহারাজ নেন ৩ উইকেট। জবাবে কুইন্টন ডি কক আর ডিন এলগারের সেঞ্চুরিতে ৪৩১ রান তুলে দক্ষিণ আফ্রিকা। রবিচন্দন অশ্বিন একাই নেন ৭ উইকেট।

এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে রোহিত শর্মার সেঞ্চুরিতে ৪ উইকেটে ৩১৩ রান করে ভারত। জবাবে মাত্র ১৯১ রানে অলআউট হয় প্রোটিয়ারা। জাদেজা চারটি আর শামি নেই পাঁচ উইকেট।

শনিবারের খেলা শেষে  দক্ষিণ আফ্রিকা ভারতের থেকে ৩৮৪ রান পিছনে ছিল। এই বিশাল রান তাড়া করে পঞ্চম দিনে ম্যাচ জেতা ছিল বেশ কঠিন। আগের ইনিংসে সেঞ্চুরি করা এলগারকে মাত্র ২ রানে ফিরিয়ে দিয়ে চতুর্থ দিনের শেষে প্রথম ধাক্কাটা দিয়েছিলেন জাদিজাই।

রবিবার শুরুতে ধাক্কা দেন অশ্বিন। তিনি ফিরিয়ে দেন থিউনিস ব্রুনকে (১০)। নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট পড়তে থাকে এর পর। অধিনায়ক ফ্যাফ দু’ প্লেসিকে ফেরান শামি। ডু প্লেসি করেন মাত্র ১৩ রান। খাতাই খুলতে পারেননি দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কক। এতে ৬০ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসে আফ্রিকা।

এরপর দলীয় ৭০ রানের মাথায় ৩৯ রান করে বিদায় নেন মার্করাম। এই রানেই পড়ে যায় আরও দুই উইকেট। এতে ১০০ রানের আগেই অলআউট হওয়ার শঙ্কায় পড়ে প্রোটিয়ারা। তবে ১০ নম্বরে নামা ব্যাটসম্যান ডেন পিডটকে নিয়ে ৯১ রানের জুটি গড়েন মুতুস্বামী।

পিডটকে নিজস্ব ৫৬ রানের মাথায় ফেরান শামি। শেষ উইকেটে আসে ৩০ রান। রাবাদাকে সাহার ক্যাচ বানিয়ে ভারতের জয় নিশ্চিত করেন সেই শামিই।

মন্তব্য লিখুন :