কর্ণাটকা উপনির্বাচনে ভরাডুবি বিজেপির

ভারতের সংসদ নির্বাচনের আরও ৬ মাসের মতো বাকি আছে। তবে নির্বাচনের আগে বেশ কয়েকটি সমস্যায় জড়িয়ে পড়া মোদি সরকার এবার আরও একটি ধাক্কা খেয়েছে। কর্ণাটকার উপনির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি)। পাঁচটি আসন নিয়ে হওয়া নির্বাচনে চারটি আসনই চলে গেছে কংগ্রেস-জেজিএস জোট শিবিরে। শুধুমাত্র প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পার ছেলে বি ওয়াই রাঘবেন্দ্র একটি আসন বিজেপিকে উপহার দিয়েছেন।

জানা যায়, মোট ৫টি আসনে উপনির্বাচন হয়েছিল। যার মধ্য ৩টি লোকসভা এবং ২টি বিধানসভা আসন। তিনটি লোকসভা আসনের মধ্যে দুটি ছিল বিজেপির দখলে, একটি বিরোধীদের দখলে। এই পাঁচ আসনের মধ্যে চার আসনেই বড় ব্যবধানে এগিয়ে কংগ্রেস-জেডিএস জোটের প্রার্থীরা। একমাত্র বিএস ইয়েদুরাপ্পার ছেড়ে আসা আসন শিবামোগাতে ইয়েদুরাপ্পারই ছেলে বি ওয়াই রাঘবেন্দ্র এগিয়ে আছেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন, লোকসভার আগে শেষ উপনির্বাচন, এরপর পাঁচ রাজ্যের নির্বাচন আছে। তাই অনেকেই মনে করছিলেন কর্ণাটকের উপনির্বাচনেই বোঝা যাবে কোন পথে এগোচ্ছে জাতীয় রাজনীতি। তাছাড়া সরকার গঠনের পর কংগ্রেস-জেডি(এস) জোটের এটাই ছিল প্রথম পরীক্ষা। আর সেই পরীক্ষাতে টিকে গেছে কংগ্রেস।

সরকার গঠনের পর বেশ ভালোভাবে মোদি সরকার এগিয়ে গেলেও শেষদিকে এসে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে বিজেপি জোটকে। বিশেষ করে রাফালে দুর্নীতি, গরু ইস্যু, ব্যাংক নোট বাতিল, সিবিআইয়ের দ্বন্দ্ব ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকে নাক গলাতে গিয়ে বেশ সমস্যাতেই পড়েছে মোদি। এসব কারণে ভাটা পড়েছে তাদের জনপ্রিয়তাতেও। অন্যদিকে, বিজেপি বিরোধী জোট গড়ে দারুণভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে কংগ্রেস।

মন্তব্য লিখুন :