‘মেয়েদের অস্তিত্ব যেন শরীর সর্বস্ব, পবিত্রতা লুকিয়ে যোনিতে’

ভারতের কেরলের শবরীমালা মন্দিরে নারীদের প্রবেশ নিয়ে তুঘরকি কাণ্ড গটে যাচ্ছে। অন্ধ ধর্মভক্তদের তোপের মুখে মাথানত করেছে আদালত ও প্রশাসনও। এই যখন অবস্থা তখন এই ইস্যুতে কথা বলেছেন তামিল অভিনেত্রী পার্বতী।

জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী বলেন, জন্ম থেকে শুনে আসছি, ঋতুমতী মেয়েরা নাকি অপবিত্র। মেয়েদের অস্তিত্ব যেন শরীর সর্বস্ব। যাবতীয় পবিত্রতা লুকিয়ে যোনিতেই। কুমারী কি না, তার উপর নির্ভর করছে সতীত্ব। এই মানসিকতা পাল্টানো দরকার।

পার্বতী বলেন, জানি না কবে তা সম্ভব হবে। হয়ত আরও কয়েক প্রজন্ম কেটে যাবে। তবে লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। নইলে বিষয়টি থিতিয়ে যাবে।

ভারতে নারীদের বর্তমান অবস্থা জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ১৭ বছর বয়সে বিনোদন জগতে পা রেখেছিলাম। লিঙ্গ বৈষম্যটা তখন আরও ভালভাবে বুঝতে শিখি। কথা বলার সময় পুরুষ সহকর্মীদের নজর আটকে থাকত আমার শরীরে। বুঝিয়ে দিত, যে তারা আর একজন মানুষের সঙ্গে কথা বলছে না। কথা বলছেন একজন মহিলার সঙ্গে।

তিনি বলেন, কাগজে অনেককিছুই বেরোয়। কিন্তু বাস্তবটা আমাদের এখানে একেবারেই আলাদা। মানসিকতার পরিবর্তন একেবারেই হয়নি। আজও লিঙ্গের ভিত্তিতেই পরিচয় গডে় ওঠে।

উল্লেখ্য, পবিত্রতা রক্ষায় কেরালার শবরীমালা মন্দিরে ১০ থেকে ৫০ বছরের নারীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ রয়েছে যুগ যুগ ধরে। তবে সম্প্রতি ভারতের সুপ্রিম কোর্ট ওই মন্দিরে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে রায় প্রকাশ করে। এরপরই ওই মন্দিরে নারীরা ঢুকতে গেলে তাদের বাধা দেন মন্দিরের পুরোহিত ও ভক্তরা। পরে পুলিম প্রহরায় দুই নারী মন্দিরে ঢুকতে পারলেও বিক্ষোভের মুখে মন্দির বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পরে গতকাল থেকে আকবার মন্দির উন্মুক্ত করা হয়।

মন্তব্য লিখুন :