সাবেক স্ত্রীকে গণধর্ষণের পর গোপনাঙ্গে লাঠি ঢুকিয়ে হত্যা

নারী ও শিশুদের প্রতি দিন দিন যৌন সহিংসতা বেড়েই চলছে। আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতে এর প্রবণতা সবচেয়ে বেশি। প্রায় প্রতিদিনই অন্তত ২০ জন নারী ও শিশু যৌন সহিংসতার শিকার হচ্ছে।

এরকমই একটি সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে দেশটির ঝাড়খণ্ডের জামতাড়া জেলায়। সেখানে বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে সাবেক স্ত্রীকে গণধর্ষণ করেছেন এক ব্যক্তি। ধর্ষণ করার পর মহিলার গোপনাঙ্গে লাঠি ঢুকিয়ে নৃশংস নির্যাতন করে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওই মহিলার প্রাক্তন স্বামীকে। তবে এখনো পলাতক রয়েছে তার দুই সহযোগি।

জানা যায়, গত বুধবার কালীপুজোর রাতে বাড়ির কাছেই নাটক দেখতে গিয়েছিলেন ওই নারী। এ সময় তার প্রাক্তন স্বামী ও তার দুই সহযোগি তাকে অপহরণ করে সেখান থেকে পাশের একটি মাঠে নিয়ে যায়। পরে সেখানে তিনজন মিলে তাকে রাতভর লাগাতার ধর্ষণ করে। এরপর তার গোপনাঙ্গে লাঠি ঢুকিয়ে অত্যাচার করা হয়।

পরের দিন সকালে গ্রামবাসীরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে তাকে একটি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে জামতাড়া সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মন্তব্য লিখুন :