সেই শামীমা আইএসের হয়ে যে কাজ করতেন

লন্ডনের বেথনাল গ্রিন স্কুলের ছাত্রী শামীমা বেগম জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের হয়ে নৈতিকতা পুলিশের দায়িত্ব পালন করতেন। ব্রিটিশ দৈনিক টেলিগ্রাফের খবরে বলা হয়েছে, এছাড়া তরুণীদের আইএসে যোগ দিতে উদ্বুদ্ধ করতেন তিনি।

তাকে একটি কালাশনিকভ রাইফেল বহনের অনুমতি দিয়েছিল আইএস। নারীদের পোশাকসহ আইএসের আইন কঠোরভাবে বাস্তবায়নে খ্যাতি ছিল তার।তবে ১৯ বছর বয়সী শামীমা বেগম বলেন, সিরিয়ায় থাকাকালে তিনি কখনোই আইএসের নৃশংসতায় অংশ নেননি। তিনি কেবল এক আইএসযোদ্ধার ধর্মপ্রাণ স্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে আইএসে যোগ দিতে দুই বান্ধবীকে নিয়ে সিরিয়ায় পাড়ি জমিয়েছিলেন শামীমা বেগম। তখন তার বয়স ছিল ১৫ বছর।তারা তিনজন যুক্তরাজ্যের গেটওয়ে বিমানবন্দর থেকে প্রথমে তুরস্কে পৌঁছান। তুরস্কে পৌঁছানোর পর সীমান্ত পাড়ি দিয়ে সিরিয়ায় যান।

সিরিয়ার শহর রাক্কায় কিছুদিন অবস্থানের পরে ২৭ বছর বয়সী এক ডাচ নাগরিকের সঙ্গে শামীমার বিয়ে হয়। ওই ব্যক্তি অন্য ধর্ম থেকে ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন।

মন্তব্য লিখুন :