ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবাব নেব বিজেপি: হুঁশিয়ারি মমতার

ফাইল ছবি

পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ'র রোড শো ঘিরে সংঘর্ষের ঘটনায় বিদ্যাসাগর কলেজে ঈশ্বরচন্দ্রের মূর্তি ভাঙার পর চরম হুঁশিয়ারি দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, 'ঈশ্বরচন্দ্রের মূর্তি ভেঙে দিয়েছে। এটা নকশাল আমলেও ঘটেনি। এত বড় লজ্জা। আমরা এটা ছেড়ে দেব না। ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবাব নেব বিজেপি।'

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিজেপি-তৃণমূলের দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় উত্তাল হয়ে ওঠে কলকাতার রাজপথ। তারপর বিদ্যাসাগর কলেজে ঈশ্বরচন্দ্রের মূর্তি ভাঙার খবর পেয়ে উত্তপ্ত হয়ে এসব কথা বলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

জি নিউজের খবরে বলা হয়, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অমিত শাহ'র রোড শো ঘিরে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে করকাতার কলেজস্ট্রিট ও বিধানসরণী। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে রোড শো যাওয়ার সময় কালো পতাকা দেখায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীরা। বিজেপি সমর্থকদের লক্ষ্য করে তৃণমূলের কর্মীদের ইট-পাটকেল ছোঁড়ার অভিযোগও ওঠে। এতে বিজেপি সমর্থকরাও পাল্টা আক্রমণ করেন। এরপর বিদ্যাসাগর কলেজের সামনে আরও একবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

ওই ঘটনায় অত্যন্ত ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেহালার জনসভায় বলেন, 'অমিত শাহ, বিরাট নেতা নাকি! তার মুখ দেখলেই লোকে ভয় পায়। উত্তর কলকাতায় মিছিল করতে উত্তরপ্রদেশ, বিহার, ঝাড়খণ্ড থেকে লোক এনেছেন। কী করেছে শুনুন? সংবাদমাধ্যম থেকে জানতে পেরেছি, অমিত শাহের মিছিল যেই শেষ হয়েছে', বিজেপির কিছু গুন্ডা, হাতে ডান্ডা নিয়ে বিদ্যাসাগর কলেজে আগুন লাগিয়েছে।'

মমতা বলেন, 'জানো তোমরা, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর কে? যিনি নারী শিক্ষার প্রচলন করেছিলেন। যিনি মানুষকে শিক্ষিত করেছিলেন।'

বিজেপিকে হুঁশিয়ারি দিয়ে মমতা আরও বলেন, 'এটা দ্বিশত বর্ষ বিদ্যাসাগরের। বাংলার হেরিটেজের গায়ে হাত দিলে আমার থেকে ভয়ঙ্কর কেউ নয়। রবীন্দ্রনাথের গায়ে হাত দিলেও ছাড়ব না। বিদ্যাসাগরের গায়ে হাত দিয়ে তুমি আজ কী করেছ বুঝবে?'

এরপর নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহকেও গুন্ডা আখ্যা দিয়ে মমতা আবারও মূর্তি ভাঙচুরের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

মন্তব্য লিখুন :