রোহিঙ্গা হত্যায় ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত সেনাদের ৭ মাসেই মুক্তি

মিয়ানমারের রাখাইনের ইন ডিন গ্রামে ২০১৭ সালে ১০ রোহিঙ্গা মুসলিমকে হত্যার দায়ে ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত সাত সেনা সদস্যকে সাত মাস না যেতেই গোপনে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। দুই কারা কর্মকর্তা, দুই সাবেক বন্দী ও এক সৈনিকের বরাত দিয়ে সোমবার রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

রয়টার্স তাদের বিশেষ এই প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ১০ রোহিঙ্গা হত্যাকাণ্ড প্রকাশ্যে আসার পর গত বছরের এপ্রিলে জড়িত ওই সাত সেনা সদস্যকে প্রথমে বরখাস্ত করা হয় এবং পরে তাদেরকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। কিন্তু সে সময় ওই সেনা সদস্যদের কোনো নাম প্রকাশ করেনি সেনাবাহিনী। এর কয়েক মাস পর নভেম্বর মাসেই গোপনে ওই সেনা সদস্যদের মুক্তি দেয়া হয়।

এদিকে এই হত্যাকাণ্ড নিয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন তৈরি করা রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে ১৬ মাসেরও বেশি সময় কারাবরণ করার পর আন্তর্জাতিক চাপে চলতি মাসের ৭ তারিখে মুক্তি দেওয়া হয়। অর্থাৎ এই হত্যাকাণ্ড প্রকাশ করা সাংবাদিকদের চেয়েও কম সময় সাজা খাটলেন হত্যায় জড়িত সাত সেনা সদস্য।

ওই সেনা সদস্যদের মুক্তির বিষয়ে নিশ্চিত করে সিত্তে কারাগারের চিফ ওয়ার্ডেন ওইন নেইং এবং নাম প্রকাশ না করে নেপিদোর জ্যেষ্ঠ এক কারা কর্মকর্তা জানান, দণ্ডিত ওই জওয়ানরা কয়েক মাস ধরে কারাগারে নেই। সামরিক বাহিনী তাদের সাজা কমিয়ে দিয়েছে।

কিন্তু তাদের কখন মুক্তি দেওয়া হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাননি তারা। তারা জানান, এটা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশও করেনি কর্তৃপক্ষ। তবে সাবেক দুই বন্দী জানিয়েছেন, গত নভেম্বরে এই সৈনিকদের মুক্তি দেওয়া হয়।



মন্তব্য লিখুন :