বিজেপি নেত্রীরা তাদের স্বামীকে মোদীর কাছে পাঠাতে ভয় পান!

ভারতে এখন চলছে লোকসভা নির্বাচন। ভোট যত শেষের দিকে এগোচ্ছে, বেড়েই চলেছে রাজনৈতিক কাদা ছোড়াছুড়ি। পাশাপাশি চরছে ব্যক্তিগত আক্রমণও।

অলওয়ার গণধর্ষণ নিয়ে মায়াবতীর বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তার জবাবে সোমবার মোদীকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করেন মায়াবতী।

তিনি বলেন, বিজেপি নেত্রীরা তাঁদের স্বামীকে মোদীর আশেপাশে দেখলেই আঁতকে ওঠেন। তাঁরা ভয় পান এই বুঝি মোদী নিজের মতো তাঁদেরও বিবাহবিচ্ছেদ করে দেবেন।

মায়াবতীর এই মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বিজেপি। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নির্মলা সীতারামণের দাবি, মায়াবতীকে ক্ষমা চাইতে হবে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি বলেছেন, জনসমক্ষে বেরুনোর অযোগ্য মায়াবতী।

গত ২৬ এপ্রিল অলওয়ারে এক ব্যক্তি স্ত্রীকে নিয়ে বাইকে যাচ্ছিলেন। এ সময় চারজন ওই নারীকে ধর্ষণ ও তার ভিডিও তুলে রাখে মোবাইলে। মোবাইল ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে পরে মোটা টাকাও দাবি করে দুষ্কৃতীরা। কয়েক মাস আগেই রাজস্থানে ক্ষমতায় এসেছে কংগ্রেস। কংগ্রেসকে সমর্থন করেছিল মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি। সেই সূত্রেই মোদী মায়াবতীকে নিশানা করে বলেন, অলওয়ার গণধর্ষণ নিয়ে মায়াবতী সত্যিই উদ্বিগ্ন হলে রাজস্থানে কংগ্রেস সরকারের উপর থেকে সমর্থন তুলে নিতেন। আজ তারই জবাব দিলেন মায়াবতী।

মন্তব্য লিখুন :