পদত্যাগের পথেই হাঁটলেন সোমেন মিত্র

লোকসভা নির্বাচনে হারের দায় স্বীকার করে কংগ্রেসে একের পর এক নেতা পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন ইতোমধ্যেই। এবার সেই পথেই হাঁটলেন সোমেন মিত্র। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির পদ থেকে তিনি পদত্যাগ করেছেন বলে জানা গেছে। খবর এনডিটিভির।

সূত্রের খবর, প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেননি রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষক গৌরব গগৈ। বরং তাকেই দায়িত্ব পালন করতে বলেছেন তিনি। 

সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে মাত্র দুটি আসনে জিতেছে কংগ্রেস। ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে তারা পেয়েছিল চারটি আসন।

গত সপ্তাহে আনুষ্ঠানিকভাবে কংগ্রেস সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেন রাহুল গান্ধী। লোকসভা নির্বাচনে দলের বিপর্যয়ের দায় নিয়ে আর পদে থাকতে চাননি তিনি।

এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ মে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে ডাকা দলীয় বৈঠকে, দলের খারাপ ফলের সম্পূর্ণ দায় নেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র...সেই কারণেই পদত্যাগ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন তিনি। যদিও তাকে তা করতে দেননি দলের নেতাকর্মীরা। 

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, তবে গত সপ্তাহে, রাহুল গান্ধীর পদত্যাগের পর, অখিল ভারতীয় কংগ্রেস কমিটির কাছে নিজের পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছেন সোমেন মিত্রও।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্রের সঙ্গে দেখা করেন রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষক গৌরব গগৈ।

তিনি জানান, তার পদত্যাগপত্র গৃহীত হবে না। দলীয় একটি সূত্র জানিয়েছে, “গগৈ বলেছেন, নয়া কংগ্রেস সভাপতি রাজ্য কমিটিগুলি তৈরি করবেন এবং নয়া প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতিদের নিয়েও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখেই প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদ বদল করা হয়। তৎকালীন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরীকে সরিয়ে বিধানভবনের কুর্সিতে বসানো হয় সোমেন মিত্রকে।

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই তিনি সাফ জানিয়েছিলেন, দলকে নিজের পায়ে দাঁড় করানোই হবে তার প্রথম লক্ষ্য।

মন্তব্য লিখুন :