পরমাণু যুদ্ধের হুমকি ইমরান খানের

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আলোচনায় বসতে আর রাজি নন বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সম্প্রতি ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে চলমান উত্তেজনা নিরসনে মোদি ও ইমরানকে আলোচনার আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁর ওই প্রস্তাবের পরই মোদির সঙ্গে আলোচনায় অনাগ্রহের কথা ঘোষণা করলেন ইমরান। সেই সাথে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দিয়েছেন পরমাণু যুদ্ধের হুমকি।

নিউইয়র্ক টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ফোনে কথা হওয়ার পরের দিন তিনি বারবার আলোচনায় বসার কথা জানালেও ভারত তাতে কোন গুরুত্ব দেয়নি।

তিনি বলেন, ভারতের সঙ্গে আর কোন কথা বলে লাভ নেই। শান্তি রক্ষার্থে ও কথোপকথনের জন্য আমি যে সব পদক্ষেপ নিয়েছি, মনে হয় সেইগুলিকে তাঁরা তোষণের চোখে দেখেছেন। এর চেয়ে বেশি কিছু আমাদের করার নেই।

কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের আগে ও পরে পরিস্থিতির কোন পরিবর্তন হয়নি, এমনটাই জানিয়েছেন ইমরান খান।

এরপর ইমরান আরো বলেন, ভারতের পক্ষ থেকে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হলে পাকিস্তান তার যোগ্য জবাব দেওয়ার জন্য তৈরি রয়েছে। কাশ্মীরে মিথ্যে অভিযান শুরু করতে পারে ভারত।

তিনি বলেন, দুই দেশের কাছেই পরমাণু অস্ত্র রয়েছে। শক্তিধর দুই দেশ যখন যুদ্ধের হঁশিয়ারি দেয় তখন যেকোনো কিছু হতে পারে। বিশ্ব শান্তির জন্য ভালো নয়।

গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মাধ্যমে কাশ্মীরের ওপর থেকে ভারত বিশেষ মর্যাদা তুলে নেওয়ার পর থেকেই পাকিস্তানের সঙ্গে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়েছে। এর মধ্যে বেশ কয়েকবার দুই দেশ সীমান্তে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে। এতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়।

মন্তব্য লিখুন :