যুক্তরাষ্ট্রের সাথে যুদ্ধের জন্য আমরা প্রস্তুত: ইরান

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ‘সর্বাত্মক যুদ্ধের’ জন্য ইরান প্রস্তুত বলে কড়া হুঁশিয়ারি জানিয়েছেন দেশটির ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর আকাশ প্রতিরক্ষা বিভাগের কমান্ডার আমির আলি হাজিজাদেহ।

রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে হাজিজাদেহ এ হুঁশিয়ারি দেন। ইরানের আধা সরকারি সংবাদ সংস্থা তাসনিম এ খবর জানিয়েছে।

গত শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সৌদি আরবে বিশ্বের সর্ব বৃহৎ তেল প্রক্রিয়াজাতকরণ স্থাপনা ও তেল খনিতে ড্রোন হামলা চালায় ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা। হুথিদের ‘ইরানের মদতপুষ্ট’ মনে করে সৌদি আরব ও তাদের পশ্চিমা মিত্ররা।

ওয়াশিংটন ওই হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করে। যথাযথ প্রমাণ হাতে পেলে তারা তেহরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধেও প্রস্তুত বলে জানায়। যুক্তরাষ্ট্রের এ ধরনের ‘অমূলক’ দাবির ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া হিসেবে ইরানি কমান্ডার ওয়াশিংটনের সঙ্গে ‘যুদ্ধে প্রস্তুত’ বলে জানান।

যুক্তরাষ্ট্রকে উদ্দেশ্য করে হাজিজাদেহ বলেন, সবার জেনে রাখা উচিত যে, আশেপাশে ২ হাজার কিলোমিটারের মধ্যে থাকা সব মার্কিন ঘাঁটি ও বিমানবাহী রণতরী ইরানি ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় পড়ে। আমরা সব সময়ই সর্বাত্মক যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত।

একই দিনে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সৌদি হামলার ঘটনায় তেহরানকে জড়ানোর ব্যাপারটিকে অমূলক বলে অভিহিত করে। এ ধরনের অপবাদ ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ানোর ‘অজুহাত’ বলে জানায় তারা।

এদিকে, এক সিনিয়র মার্কিন কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সম্প্রচারমাধ্যম এবিসি জানিয়েছে, ওই হামলার জন্য ইরান দায়ী এ ব্যাপারে পুরোপুরি একমত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের সর্বশেষ বক্তব্যের বিষয়ে ইরান এখনও মন্তব্য করেনি। এর আগে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ টুইটবার্তায় বলেন, সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের কৌশল ব্যর্থতা হওয়ায় এখন সর্বোচ্চ প্রতারণার দিকে যাচ্ছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

মন্তব্য লিখুন :