কাশ্মীর তো ‘ট্রেলার’ মাত্র, সিনেমা এখনো বাকি: মোদি

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলকে ‘ট্রেলার’ বলে বর্ণনা করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, গোটা সিনেমাটা এখনও বাকি রয়েছে!

বৃহস্পতিবার ঝাড়খণ্ডে জনসভায় বক্তৃতায় তিনি বলেন, তাঁর দ্বিতীয় সরকার দুর্নীতি ও সন্ত্রাসবাদকে দেশ থেকে উচ্ছেদ করতে বদ্ধপরিকর।

গত ৫ আগস্ট ভারতের সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে কাশ্মীর ও লাদাখকে আলাদা দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করা হয়। এর ফলে ক্শ্মীরের পুরো নিয়ন্ত্রণ চলে যায় ভারতের হাতে। সেখানে এখন নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে মোদি সরকার।

তবে কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা বাতিলের বিরোধীতা করছে সেখানকার স্থানীয়রা। যে কারণে ৩৯ দিন ধরে কাশ্মীরে জারি রয়েছে ১৪৪ ধারা। প্রায় ৭ লাখ ভারতীয় সেনা গোটা উপত্যকা ঘিরে রেখেছে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৩ হাজারেরও বেশি রাজনীতিককে।

এছাড়া কাশ্মীরের তরুণদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে গ্রেপ্তার করে টর্চার করা হচ্ছে। কেয়েকদিন আগে স্কুল খুলে দিলেও কেউ সেখানে উপস্থিত হচ্ছে না। বন্ধ রয়েছে ইন্টারনেট ও মোবাইল ফোন সেবাও।

এদিকে, কাশ্মীরের স্পেশ্যাল স্ট্যাটাস তুলে নেওয়ার প্রতিবাদ জানাচ্ছে পাকিস্তান। এমনকি তারা পরমাণু যুদ্ধেরও হুমকি দিচ্ছে। এরইমধ্যে গতকাল ভারতের সেনাপ্রধান জানিয়েছেন ভারতের সেনাবাহিনী পাক াধিকৃত কাশ্মীর দখলের জন্য প্রস্তুত। সরকারি নির্দেশ পেলেই তারা মাঠে নামবেন।

এতে নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে সীমান্ত এলাকায়। এরইমধ্যে মোদির ভাষণ উত্তেজনার পাদ আরও বাড়িয়ে তুলেছে। যদিও বক্তৃতায় সবকিছু খোলাসা করেননি তিনি।

জনসভায় দুর্নীতিবাজদের প্রতিও হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি। মোদি বলেন, কেউ কেউ নিজেকে আইন ও আদালতের ঊর্ধ্বে ভাবতেন। এখন জামিন চেয়ে তাঁরা কোর্টে দৌড়াচ্ছেন। কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। দুর্নিতি করলে জেলে যেতেই হবে।

মন্তব্য লিখুন :