সৌদি আরবে ঝড় তুলেছেন যে ২ নারী

পরনে বোরকা নেই। মাথা ঢেকেও রাখেন নি। বরং আধুনিক পোশাকে প্রকাশ্যে সৌদি আরবের শপিং মলে ঘুরছেন এক আরব মহিলা। নাম জালুদ। তাঁর ছবিতে দুনিয়া আলোড়িত।

ঘটনাস্থল রিয়াদ। স্থানীয় একটি শপিং মলে বোরখা বিহীন হয়ে ঘুরে বেড়িয়েছেন জালুদ। সবাই অবাক হয়ে গেছে তার দুঃসাহসে। এই ঘটনা ছড়িয়েছে বিশ্বজুড়ে। তবে জালুদ নির্বিকার। ৩৩ বছর বয়সী মাশায়েল আল জালুদ কী ঘটিয়েছেন তা নিয়ে চর্চা চলবেই।

এর আগেও একাধিক সৌদি মহিলা কখনও বোরখা পরেই গাড়ি চালিয়েছেন। কেউবা প্রকাশ্যেই ধর্মীয় পুলিশের সঙ্গে বচসায় জড়িয়েছেন। ক্রমে সৌদি আরবের মহিলারা কড়া ধর্মীয় বাঁধন ছেড়ে দিতে মরিয়া.

দেশের বর্তমান যুবরাজ তথা ভবিষ্যৎ বাদশা মহম্মদ বিন সালমান দেশ শাসনের বড় অংশটি সামলাচ্ছেন। পিতা বাদশা সালমান বিন আজিজের নির্দেশে যুবরাজ কড়া আইনে শিথিলতা আনতে সচেষ্ট। দেশের মহিলাদের জন্য একাধিক আইন হাল্কা করা হয়েছে। এসেছে নির্বাচনে প্রত্যক্ষ অংশ নেওয়ার নিয়মও।


গত বছর ‘আবায়া’ অর্থাৎ সৌদি মহিলাদের মাথা ঢেকে রাখার কাপড় পরার আইনে শিথিল হচ্ছে বলেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যুবরাজ। যদিও সেটি আইনে পরিণত হয়নি।

তাঁর ঘোষণার পর থেকেই ধীরে ধীরে সৌদি আরবে প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেন মহিলারা। জালুদ তারই খোলামেলা প্রতীক হয়েই থাকবেন।

আল জাজিরা, গালফ নিউজ সহ, আরব দুনিয়ার সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে, জালুদ মানবসম্পদ বিশেষজ্ঞ। তিনি নিঃসংকোচেই সৌদি আরবের রাস্তায় বোরখা ছাড়াই ঘুরে বেড়িয়েছেন।

এদিকে জালুদের দেখাদেখি আরও এক আরব মহিলার অবস্থানও ঝড় তুলেছে। জিনস ও গেঞ্জি পরে সৌদির রাস্তায় দেখা গিয়েছে ২৫ বছরের তরুণীকে। তাঁর নাম মানাহেল আল ওতাইবি।

মন্তব্য লিখুন :