কঠোর নিরাপত্তায় ইবিতে ‘এ’ ও ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন

নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশের মধ্য দিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) প্রথম দিনের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের  স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষা সোমবার (৪ নভেম্বর) দিনের প্রথম শিফটে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ধর্মতত্ব ও ইসলাম শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। 

পরে বেলা সাড়ে ১১ টা থেকে সাড়ে ১২ টা এবং দুপুর ২ টা থেকে ৩ টা পর্যন্ত দ্বিতীয় ও তৃতীয় শিফটে ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। উভয় ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রায় ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থীর উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। 

পরীক্ষা চলাকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী, উপ উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান এবং কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এবছর বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ছয়টি কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মোট চার শিফটে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আটটি অনুষদের অধীন চার ইউনিটে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এ দিকে ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে ইতোমধ্যে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হয়েছে পুরো ক্যাম্পাস। সব ধরনের জালিয়াতি ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। যেকোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে ক্যাম্পাসে বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা নজরদারি ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা। একইসাথে যেকোনো ধরনের অপরাধ দমনে সর্বদা পর্যবেক্ষণে রয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। মেইন গেটে শিক্ষার্থীদের আর্চওয়ে ডিটেক্টর ও কেন্দ্রের সামনে মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যম সার্চ করে পরীক্ষার হলে প্রবেশ করানো হয়। পরীক্ষার হলে ফোন, ক্যালকুলেটর, ঘড়িসহ যেকোন ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।  

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এবং ভর্তি পরীক্ষার নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা উপ কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্মন সাংবাদিকদের বলেন, ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। যেকোন মুহূর্তে যে কোন ধরনের অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ভর্তি পরীক্ষার দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) মোট চার শিফটে কলা, সামাজিক বিজ্ঞান ও আইন অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।