মুসলিম শিক্ষার্থীদের কৃষ্ণ প্রসাদ বিতরণের প্রতিবাদে হাটহাজারীতে বিক্ষোভ

চট্টগ্রামের বিভিন্ন বিদ্যালয়ে মুসলিম শিক্ষার্থীদের মাঝে হিন্দুত্ববাদের স্লোগান দিয়ে কৃষ্ণ প্রসাদ বিতরণ এবং ভারতে মুসলিম নির্যাতন ও হত্যার প্রতিবাদে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মুসলিম ছাত্র জনতা ঐক্য পরিষদের ব্যানারে বৃহস্পতিবার বিকালে হাটহাজারী ডাকবাংলো চত্বরে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

‌বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস আল্লামা মুমতাজুল করিম (বাবা হুজুর)।

‌সভায় বক্তারা মুসলিম শিক্ষার্থীদের মাঝে হিন্দুত্ববাদের স্লোগান দিয়ে কৃষ্ণ প্রসাদ বিতরণের কঠোর সমালোচনা করেন। এমন ঘটনা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাকে উস্কে দেবে বলেও আশংকা প্রকাশ করেন তারা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ইসকনের উগ্রবাদী হিন্দুরা হরে রাম হরে কৃষ্ণ বলে মন্দিরের প্রসাদ বিতরণ করে ভিডিওর মাধ্যমে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে কোটি কোটি মুসলমানের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হেনেছে।

তাদের এমন কাণ্ডে মুসলমানদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। আমরা এই উগ্রবাদী সংগঠনটিকে এমন কৃতকর্মের জন্য জাতীর কাছে প্রকাশ্যে অনুতপ্ত হওয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় এ আন্দোলন সারা দেশে ছড়িয়ে পড়বে।

এছাড়া সমাবেশ থেকে প্রসাদ ভোগী স্কুল ছাত্রদের জমজমের পানি ও খেজুর খাওয়ানোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হয় উক্ত সমাবেশ থেকে।

বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মাওলানা মীর মুহাম্মদ ইদ্রিস, আহছানুল্লাহ, মাওলানা নাছিম সাহেব, নুর মুহাম্মদ, মাওলানা হাফেজ আব্দুল মাবুদ,মাওলানা মহিউদ্দিন,মাওলানা আসাদ প্রমুখ। ‌‌বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে হাটহাজারী ডাকবাংলো চত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

প্রসঙ্গত, হিন্দু সম্প্রদায়ের রথযাত্রা উপলক্ষে ‌চট্টগ্রামে প্রায় ৩০টি স্কুলে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনা মৃত সংঘ তথা ‘ইসকন’ তাদের ‘ফুড ফর লাইফ’ কর্মসূচির আওতায় কৃষ্ণ প্রসাদ বিতরণ করে।

হেফাজত ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীসহ বিভিন্ন ইসলামি সংগঠন হিন্দুত্ববাদের স্লোগান দিয়ে কৃষ্ণ প্রসাদ বিতরণের কঠোর সমালোচনা করে প্রতিবাদ জানিয়েছেন।