ময়মনসিংহে ছেলেধরা সন্দেহে নারীকে গণধোলাই

ময়মনসিংহের ভালুকায় ছেলেধরা সন্দেহে মালেকা (৩৫) নামে এক নারীকে গণধোলাই দিয়েছে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটে শনিবার (২০ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ভালুকা উপজেলার ধামসুর এলাকায়।

আহত মালেকা ভালুকার পাঁচগাঁও গ্রামের শাহ আলমের স্ত্রী। তিনি স্থানীয় একটি মোটরসাইকেল কারখানায় কাজ করেন।

আহত মালেকা জানায়, সকালে সে অসুস্থ্য অনুভব করায় কর্মস্থল থেকে ছুটি নিয়ে ভালুকায় হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার জন্যে রওনা হয়। কিছু দূর আসার পর ক্লান্তবোধ করায় স্থানীয় একটি স্কুলের সামনে বসে বিশ্রাম নেয়ার সময় তার সাথে বাজারের ব্যাগ দেখে স্থানীয়রা (গলাকাটা) ছেলেধরা সন্দেহে গণধোলাইয়ের ঘটনা ঘটিয়েছে।

ভালুকা থানার ওসি মাঈন উদ্দিন বলেন, আজ সাড়ে ১২টার দিকে ভালুকার ধামসুর গ্রামে ছেলেধরা (গলাকাটা) সন্দেহে এক নারীকে গণধোলাই দেয়ার খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত অবস্থায় মালেকা নামের ওই নারীতে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।