ডোমারে আগুনে পুড়ে ছাই ১৮টি পরিবারের মাথা গোঁজার ঠাঁই

নীলফামারী জেলার ডোমারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই ১৮টি পরিবারের মাথা গোঁজার ঠাঁই। জীবনের সব উপার্জন হারিয়ে এসব পরিবার এখন দিশেহারা। 

সরকারিভাবে এক বান্ডিল টিন ও ২০ কেজি চাল করে দেওয়া হলেও তা চাহিদার তুলনায় একেবারেই অপ্রতুল। জেলার ডোমার উপজেলার হরিনচড়া ইউনিয়নের পশ্চিম হরিনচড়া চাকধাপাড়া গ্রামে রবিবার (৮ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে জিতেন্দ্রনাথ রায়ের বাড়ির চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে মুহুর্ত্তে চারিদিকে ছড়িয়ে পরে। 

আগুনে ১৮টি পরিবারের ৫৬টি ঘড় মুহুর্ত্তের মধ্যেই আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। অগ্নিকান্ডে ১৮টি পরিবারের আসবাবপত্র, নগদটাকা, ধান, চাল, সাইকেল, পশুপাখিসহ প্রায় কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্তরা জানিয়েছেন। অগ্নিকান্ডে একটি গরু ও ৬টি ছাগল অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যায়।

স্থানীয় সুজন রায় জানান, রবিবার ভোররাতে তাদের রান্না ঘড়ের চুলা থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়ে তা মুহুর্ত্তে চারিদিকে ছড়িয়ে পরে। এ সময় আশেপাশের জিতেন্দ্রনাথ রায়, জগদিশ চন্দ্র, লক্ষী কান্ত, বিশ্বনাথ, সত্যেন, জয়দেব, গলিবর্মন, হরিকিশোর, ডালিম, লোকনাথ, সুশীল, সুজন,সুমন, বিমোল, অধির, সুমিত্রা, নির্মল ও রিনার বাড়িতে আগুন লেগে সবকিছুই পুড়ে ছাই হয়ে যায়। 

ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আজিজুল ইসলাম জানান, অগ্নিকান্ডে ১৮টি পরিবারের সব পুড়ে গেছে। বর্তমানে ঐ এলাকায় শোকের ছায়া বিরাজ করছে।