তুহিন হত্যা: ফের রিমান্ডে বাবা-চাচা

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে চাঞ্চল্যকর শিশু তুহিন হাসান হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহত তুহিনের বাবা আব্দুল বাছিরের ৫ দিন ও চাচা আব্দুল মছব্বির ও জমসের আলীর ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শ্যাম কান্ত সিনহার আদালত সোমবার (২১ অক্টোবর) দ্বিতীয় দফায় তাদের রিমান্ড মঞজুর করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আবু তাহের মোল্লা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

১৫ অক্টোবর রবিবার রাতে সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে রাতের আধারে ঘর থেকে তুলে নিয়ে তুহিনকে গলাকেটে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। ঘাতকরা তার লাশটি রাস্তার পাশের একটি গাছের সাথে ঝুলিয়ে রেখে লিঙ্গ কেটে নিয়ে গেছে, দুটি কান কেটে একটি রাস্তায় ফেলে যায়। তুহিন ওই গ্রামের আব্দুল বাছিরের ছেলে।

ন্যাক্কারজনক এ ঘটনা জানাজানি হলে হতবাক হয় সাধারণ মানুষ। খবর পেয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের পিতা আব্দুল বাছির, ও তার তিন চাচা মাওলানা আব্দুল মোছাব্বির, জমসেদ মিয়া, নাছির, জাকিরুল , চাচী খয়রুন বেগম, এবং চাচাতো বোন তানিয়াকে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কথা বেরিয়ে আসে।

পুলিশ জানায়, এর আগে তিন দিনের রিমান্ড শেষে আবদুল বাছির জবানবন্দি দিতে রাজি হওয়ায় শুক্রবার বিকাল তিনটায় তাঁকে আদালতে আনা হয়। পরে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত তিনি আদালতে জবানবন্দি দেন। আবদুল বাছিরের সঙ্গে তাঁর দুই ভাই আবদুল মছব্বির ও জমসেদ আলীও রিমান্ডে ছিলেন। তবে তাঁরা জবানবন্দি দেননি। পরে তিনজনকেই আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।