এ কেমন বর্বরতা ?

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চরহাজারী ইউনিয়নে মোবাইলের রিচার্জ কার্ড চুরির অভিযোগে ৫ম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রকে গাছের সঙ্গে বেঁধে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (১ নভেম্বর) বিকালের দিকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরহাজারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ধনীপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নির্যাতনের শিকার নুর মোহাম্মদ সজিব (১২) উপজেলার চরহাজারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের নুর নবী মানিকের ছেলে। বর্তমানে শিশুটি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

নির্যাতনের শিকার শিশুর মা খুরশিদা বেগম শেফালী জানান, চরহাজারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ধনীপাড়া এলাকায় আব্দুল্লাহ চৌকিদারের দোকান থেকে ১২০ টাকার মোবাইল কার্ড চুরির অভিযোগে আমার শিশু সন্তানকে আব্দুল্লাহ চৌকিদার ও তার ছেলে ইসমাইল হোসেন মিলন গাছের সঙ্গে বেঁধে মহিষের রশি ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। খবর পেয়ে আমি রাত সাড়ে ১০টার দিকে ছেলেকে উদ্ধার করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আরিফুর রহমান শিশুর পরিবারের অভিযোগ পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে নির্যাতনের শিকার শিশুকে দেখে এসে শনিবার (২ নভেম্বর) দুপুরে তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে শিশু নির্যাতনকারী সেই বাবা ও ছেলেকে আটক করে। আটককৃতরা হচ্ছে, উপজেলার চরহাজারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের আব্দুল্ল্যাহ চৌকিদার ও তার ছেলে ইসমাইল হোসেন মিলন।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান জানান, ভুক্তভোগীর পরিবারের অভিযোগ পেয়ে অভিযুক্ত শিশু নির্যাতনকারীদের তাৎক্ষণিক গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  শনিবার বিকালে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।