কাপ্তাই লেকে ভয়ংকর ‘পিরানহা’

কাপ্তাই লেকে জেলেদের জালে ধরা পড়েছে আফ্রিকার মাছ ও বাংলাদেশে নিষিদ্ধ রাক্ষুসে পিরানহা মাছ। 

রবিবার (৩ নভেম্বর) দুপুরে মাছ বিক্রেতা জসিম উদ্দিনের ভাসাজালে মাছটি ধরা পড়ে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় বাজার কাঁঠালতলায় ওজন ২ কেজি ৮০০ গ্রামের রাক্ষুসে পিরানহা মাছটি বিক্রি করতে আনা হলে স্থানীয় ক্রেতাদের মধ্যে কৌতূহল সৃষ্টি হয়। পরে স্থানীয়রা ঘটনাটি উপজেলা মৎস্য অধিদফতরকে জানালে মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বাজারে এসে মাছটি বিক্রি করতে বাধা দেন এবং ধ্বংস করে ফেলেন।

লংগদুর মাছ বিক্রেতা জসিম উদ্দিন বলেন, তার নিজের ভাসাজালে রবিবার দুপুরে মাছটি ধরা পড়ে। তবে তিনি নিজেও মাছটির পরিচয় জানতেন না। এর আগেও অনেক জেলেদের জালে এমন মাছ পাওয়া গেছে বলে জানান জসিম।

বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন (বিএফডিসি) লংগদু উপজেলার কর্মকর্তা আকবর হোসেন বলেন, কাপ্তাই লেকে এমন রাক্ষুসে মাছ পাওয়া আমাদের জন্য খারাপ খবর। এ মাছ লেকে থাকলে অন্য মাছকে ধংস করে ফেলবে। ধারণা করা হচ্ছে, পুকুরে চাষাবাদের জন্য কোথাও এর বিস্তার ঘটেছে। এবং বন্যায় পুকুর ডুবে গিয়ে লেকে ছড়িয়ে পড়েছে নিষিদ্ধ পিরানহা।

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট, রাঙ্গামাটি নদী উপকেন্দ্রের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আজহার আলী বলেন, এটি বাংলাদেশে নিষিদ্ধ একটি মাছ। পিরানহা সাধারণত রাক্ষুসে প্রজাতির মাছ। এই মাছ জলাশয়ের অন্যান্য মাছের জন্যও ক্ষতিকারক।

প্রসঙ্গত, লাল পেটওয়ালা পিরানহা (Red Bellied Piranha) এবং লাল পেটওয়ালা পাকু (Red Bellied Pacu) এ দুটি প্রজাতির পিরানহা রয়েছে। যদিও মাছটি বাংলাদেশে নিষিদ্ধ তবে কেউ কেউ এই দুই প্রজাতির মাছ চাষ করেন। পিরানহা প্রজাতির মাছটি দলবদ্ধ আক্রমণে যে কাউকে ২ বা ৩ মিনিটে সাবাড় করে দিতে পারে।