স্পিডবোট নিয়ে ফিল্মি স্টাইলে ৫ স্বর্ণের দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

নরসিংদীর ঘোড়াশালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে পাঁচটি স্বর্ণের দোকান ও একটি চাউলের দোকানে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ডাকাতদল ৮০ ভরি স্বর্নালঙ্কার, ৫০০ ভরি রুপা ও নগদ ১৮ লক্ষ টাকা লুট করে নেয় বলে দাবি করেন ব্যবসায়ীরা। এ সময় দুইজন আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে জেলার পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল স্বর্ণ পট্ট্রিতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাত দেড়টার শীতলক্ষ্যা নদী দিয়ে স্পিডবোটযোগে ২০/২৫ জনের একটি ডাকাতদল ঘোড়াশালের স্বর্ণ পট্ট্রিতে হানা দেয়। ডাকাত দলটি বাজারের নিরাপত্তা রক্ষীদের কাছে পুলিশ পরিচয় দেয়। এ সময় সকল নিরাপত্তারক্ষীদের এক সাথে করে বেঁধে ফেলে ডাকাতরা। পরে পরপর ৫টি স্বর্ণের দোকানের তালা ভেঙে ভেতরে থাকা ৮০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৫০০ ভরি রুপা ও নগদ ১৮ লক্ষ টাকা লুট করে নেয়।

এতে বাধা দিতে গেলে দুইজনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে ডাকাতরা। খবর পেয়ে আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার সহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।  

মা শিল্পালয়ের মালিক রিপন চন্দ্র ঘোষ বলেন, রাতে দোকান বন্ধ করে বাসাই যাই। সকালে খবর পাই ডাকাতি হয়েছে। এসে দেখি দোকানের সাটার ,আলমিরাসহ সকল কিছুর তালা ভাঙা।

পলাশ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মো: নাসির উদ্দিন বলেন, যারা ডাকাতি করতে এসেছে, তারা নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়েছে বলে জানা যায়। মামলা দায়েয়ের প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।