নানাবাড়ি বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার, গ্রেপ্তার ৩

টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলায় নানাবাড়িতে বেড়াতে গিয়ে এক কিশোরীর (১৫) গণধর্ষণের শিকার হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) রাতে ওই কিশোরীর দাদা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার পোড়াবাড়ী গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে আবুল কালাম আজাদ (২০), একই উপজেলার খারজানা এলাকার মানিক মিয়ার ছেলে আমিরুল ইসলাম (২০) ও রাজশাহীর জেলার বাগমারা উপজেলার খারাগাছী এলাকার আক্তার আলীর মিলন মিয়া (২২)। 

গ্রেপ্তারকৃত তিনজনই প্রাণ কোম্পানির বাসাইল ও সখীপুর উপজেলার মার্কেটিং বিভাগে দায়িত্বে রয়েছেন।  

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গত কয়েকদিন আগে নানার বাড়ি বেড়াতে যান ওই কিশোরী। সোমবার সকালে বাড়ি থেকে বাইরে বের হলে তাকে জোর করে মেসে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে অভিযুক্তরা। পরে ওই কিশোরী আহতাবস্থায় পালিয়ে গিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। মঙ্গলবার তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ। বর্তমানে তিনি ওই হাসপাতালেই রয়েছেন। 

এ বিষয়ে টাঙ্গাইলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি- সখীপুর সার্কেল) আব্দুল মতিন বলেন, এ ঘটনায় জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার সাথে যারাই জড়িত থাকুক তাদেরকে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে বলেও তিনি জানান।