যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীর মাথা ন্যাড়া করে দিল স্বামী

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় গৃহবধুর মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ায় পাষন্ড স্বামী মোর্শেদুল বারীকে (২৫) আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনায় নন্দীগ্রাম থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। মোর্শেদুল নন্দীগ্রাম উপজেলার ইউসুবপুর গ্রামের বাসিন্দা মোশারফ হোসেনের ছেলে।

জানা যায়, নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলার পাঁচপাকিয়া গ্রামের নিজাম উদ্দিনের মেয়ে মার্জিয়া খাতুন রুপালীর (২০) সাথে প্রায় এক বছর আগে মোর্শেদুলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের পরিবারে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকতো। এ দিকে, গত বুধবার দুপুরে রুপালীর হাত থেকে হরলিক্সের বয়াম পড়ে ভেঙে যায়। পরে স্বামী মোর্শেদুল বাড়ি ফিরে এ ঘটনা শুনে বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে মারধর করে একপর্যায়ে তার মাথা ন্যাড়া করে দেয়।

ছেলের এমন কাণ্ডে রুপালীর শাশুড়ি চুলগুলো ফেলে দেয় ও তাকে ঘরে আটকে রাখে। পরে রুপালী মোবাইল ফোনে ঘটনাটি তার বাবা-মাকে জানায়।

রুপালীর মা মঞ্জুয়ারা বেগম জানায়, বিয়ের সময় নগদ দেড় লাখ টাকা যৌতুক দেয়া হয়েছে ছেলে পক্ষকে। এখন তারা আরো দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করছে। টাকা দিতে না পারায় স্বামী ও শাশুড়ি শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালায় মেয়ের ওপর।

নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শওকত কবীর বলেন, মোর্শেদকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মোর্শেদুল ও তার বাবা, মায়ের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।