প্রেমে রাজি না হওয়ায় ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা, শিক্ষক বহিষ্কার

নোয়াখালীর হাতিয়ায় দশম শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক মনির উদ্দিনকে বহিষ্কার করা করেছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তিনি উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের আলী আহম্মেদ মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন।

রবিবার (১৫ ডিসেম্বর) বিকালের দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরে আলম। তিনি জানান, ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর পরিবার বিষয়টি মৌখিকভাবে আজ দুপুরে তাকে অবগত করে।

এ বিষয়ে আলী আহম্মেদ মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.ইউছুফ জানান, অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় ওই শিক্ষককে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এর আগে অভিযোগের ভিত্তিতে গত বৃহস্পতিবার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আমির হোসেনকে ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব দিয়ে দুই কর্ম দিবসের মধ্যে লিখিত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরে আলম।

উল্লেখ্য, হাতিয়া উপজেলার আলী আহম্মেদ মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের ওই ছাত্রীকে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মনির উদ্দিন। গত বুধবার প্রাইভেট পড়া শেষে সকল শিক্ষার্থীদের ছুটি দিয়ে দিলেও অজুহাত দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে বসিয়ে রাখেন শিক্ষক মনির। সবাই চলে যাওয়ার পর তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে মনির। ধস্তাধস্তি করে শিক্ষক মনিরের হাত থেকে রক্ষা পায় ওই শিক্ষার্থী। ঘটনার বিচার চেয়ে ওই রাতেই হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন ভিকটিম।