১০ বছরের শিশুকে মুখে গামছা বেঁধে পালাক্রমে ধর্ষণ

সুনামগঞ্জে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ১০ বছরের এক শিশুকে গণধর্ষণের অভিযোগ আবু সুফিয়ান (২১) নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার সন্ধ্যা ৭টার সময় জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার দক্ষিণ বাদাঘাট ইউনিয়নের শক্তিয়ারখলা গ্রামে এ ঘটনার পর এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রবিবার রাতে সুফিয়ানকে আটক করা হয়।

সে একই ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের বাসিন্দা। ভিকটিম উপজেলার বাদাঘাট দক্ষিণ ইউনিয়নের শক্তিয়ারখলা গ্রামের একটি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী।

শিশুর পরিবার ও থানা সূত্রে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় পাশের বাড়ি থেকে ঘরে ফেরার সময় পূর্ব থেকে উৎ পেতে থাকা কয়েকজন বখাটে শিশুটিকে জোরপূর্বক গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে তুলে নিয়ে যায়। পরে পার্শ্ববর্তী বাঁশঝাড়ে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এ সময় শিশুটি অজ্ঞান হয়ে পড়লে ধর্ষণকারীরা শিশুটিকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর শিশুটির জ্ঞান ফিরলে আত্মচিৎকারে করতে থাকলে স্থানীয় লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে বিশ্বম্ভরপুর সদর হাসপাতাল নিয়ে আসে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আশঙ্কাজনক দেখে তাকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালেপ্রেরণ করেন।

এ ব্যাপারে বিশ্বম্ভরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুবুর রহমান জানান, এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করা হয়েছে। শিশুটির পিতা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে।