প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকার অনশন

দুই বছর পূর্বে প্রথমে পরিচয় হয়। পরিচয় থেকে কথা। এরপর থেকেই একে অপরের সঙ্গে গভীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এর মধ্যে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক। এরপর প্রেমিকাকে এড়িয়ে চলা।

তাতেই কোনো উপায় না পেয়ে বিয়ের দাবিতে গত সোমবার বিকাল ৩টা থেকে প্রেমিক মোক্তার মিয়া ওরফে আকাশের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে প্রেমিকা। এই খবরেবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে প্রেমিক।

প্রেমিক মোক্তার মিয়া উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের তেলীগাও গ্রামের ঠাকুর হাটির উসমান মিয়ার ছেলে। আর প্রেমিকার বাড়ি একেই গ্রামে।

জানা যায়, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের তরং গ্রামে হযরত শাহ ক্বারী নুরালী শাহ ওরশের রাতে প্রেমিক মোক্তার মিয়া প্রেমিকার সাথে দেখা করার জন্য ঘরে প্রবেশ করলে তরুণীর মা-বাবা তাকে আটক করে। এক পর্যায়ে প্রেমিক মোক্তার মিয়া বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে সেখান থেকে চলে আসে।

ওই তরুণীর বাবা ও মা জানান, তারা গরীব মানুষ, দিন এনে দিন খান। সোমবার সকালে কাজের সন্ধানে তারা অন্যত্র চলে গিয়ে বিকালে এসে বাড়িতে তাদের মেয়ে ঘরে নেই। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তার মেয়ে প্রেমিক মোক্তার মিয়ার বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছে।

তাদের অভিযোগ, মোক্তারের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় স্বীকৃতি না দিয়ে মারপিট ও নির্যাতন করছে। মোক্তারের বড় ভাই এরশাদ সর্দার বারবার পুলিশের ভয় দেখাচ্ছে। তারা টাকা দিয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে।

প্রেমিক মোক্তার মিয়ার বড় ভাই এরশাদ সর্দার জানান, এক তরুণী গত সোমবার থেকে আমাদের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছে। তাদের প্রতিপক্ষরা হয়রানি ও ফাঁসানোর জন্য এমনটা করছে।

শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের ৬নং ওয়ার্ড সদস্য নুরুল আমিন জানান, এ ঘটনাটি উভয়পক্ষের লোকজনকে বলে দেয়া হয়েছে দ্রুত শেষ করার জন্য।

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আতিকুর রহমান জানান, এমন একটি ঘটনা শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ভিকটিমের পরিবার থেকে এ বিষয়ে অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।