গুরুদাসপুরে চা দোকানীদের মাঝে পুলিশের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

সরকার করোনা মোকাবিলা করতে সর্বসাধারণকে ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করেছেন। এমনকি পুলিশ, সেনাবাহিনী ও স্থানীয় প্রশাসন নজরদারি করছে ঘর থেকে কেউ বের হচ্ছেন কি-না। আর এতে বিপাকে পড়েছেন চা দোকানদার ও নিম্ন আয়ের মানুষজন। এমন দুর্যোগময় মুহূর্তে নাটোরের গুরুদাসপুর থানার পুলিশ সদস্যরা এগিয়ে এসেছেন। তাদের বেতনের টাকায় ফান্ড গঠন করে নিজেদের উদ্যোগে অসহায় চা দোকানীদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন।

রবিবার (২৯ মার্চ) সকালে প্রায় তিন শতাধিক চা দোকানীদের বাড়িতে এই খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

চায়ের দোকানদার নরেশ ও সেলিম জানান, গুরুদাসপুর থানার ওসির উদ্যোগে থানা পুলিশ সদস্যদের বেতনের টাকায় আমাদের মত অসহায়দের ঘরে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে ৫ কেজি চাল, হাফ কেজি ডাল, তেল, ১ কেজি আলু ও ১টি করে সাবান। সেই সঙ্গে তারা অনুরোধ করেন, কেউ বাসা থেকে বের হবেন না। নিরাপদ থাকতে ও অপরকে নিরাপদে রাখতে এখন বাড়িতে থাকার বিকল্প নেই।

গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. মোজাহারুল ইসলাম বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে কেউ ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। এতে অসহায় মানুষ বিপাকে পড়েছেন। অনেকের বাড়িতে খাবার নেই। তারা খাবে কি? মানুষের এমন অবস্থা দেখে সবাই মর্মাহত। কিন্তু বেঁচে থাকতে গেলে বাড়িতে থাকার কোনো বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, পরিস্থিতি বিবেচনা করে থানা পুলিশের স্টাফদের সঙ্গে আলোচনা করে নিজেদের বেতনের টাকায় খাদ্য সামগ্রী চা দোকানীদের বাড়িতে পৌঁছে দিচ্ছি।

এই মুহূর্তে সমাজের সব বিত্তবান মানুষদের অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান গুরুদাসপুর থানার ওসি মোজাহারুল ইসলাম।