ইসলামপুরে ডাকাতকে গলাকেটে হত্যা, গ্রেপ্তার ২

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় সুজন তরফদারকে (৪৫) নামে ১৩ মামলার এক আসামিকে গলাকেটে হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে ইসলামপুর থানা পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার সাপধরী ইউনিয়নের যমুনার পশ্চিমপাড়ে দুর্গম প্রজাপতির চর বাজারে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে। নিহত সুজন তরফদার পাশ্ববর্তী বেলগাছা ইউনিয়নের চর বরুল গ্রামের মৃত আকবর আলী তরফদারের ছেলে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার সন্দেহে আকবর আলী এবং ফকির আলী নামে দুই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী আসমত, মোরাদ, মিজান, আজগর আলী জানায়, সুজন তরফদার মঙ্গলবার প্রজাপতির চর মডেল মসজিদে ইফতার ও মাগরিবের নামাজ পড়েন। নামাজ শেষে তিনি স্থানীয় প্রজাপতির চর বাজারে একটি চায়ের দোকানের সামনে দাঁড়িয়েছিলেন। এ সময় পাঁচ-ছয়জন তার ওপর অতর্কিতে হামলা করে। দুর্বৃত্তরা তাকে গলাকেটে করে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

তদন্ত (ওসি) মো. কবির হোসেন জানান, নিহত সুজন একজন পেশাদার আন্তঃজেলা ডাকাত। তার বিরুদ্ধে
ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ এবং গাইবান্ধার ফুলছড়ি থানাসহ বিভিন্ন জেলার থানায় ১৩টি মামলা রয়েছে।

ইসলামপুর থানার ওসি মো. মাজেদুর রহমান জানান, পূর্ব শত্রুতা ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সুজনকে খুন করা হয়ে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

সহকারী পুলিশ সুপার মো. সুমন মিয়া জানান, ইফতারের পর আমাদের কাছে খবর আসে আন্তঃজেলা ডাকাত সুজন খুন হয়েছেন। তদন্তের পর জানা যাবে হত্যকাণ্ডের রহস্য।