বগুড়ায় অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন করায় দণ্ড

বগুড়ার শেরপুরে ফসলি জমি থেকে অবৈধভাবে মাটি তোলায় এক লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়াও পৃথক অভিযানে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে সরকারি জায়গা উদ্ধার করেছে।

সোমবার সারাদিন ভ্রাম্যমাণ আদালত পৃথক পৃথক অভিযান পরিচালনা করেন। উক্ত আদালতে নেতৃত্ব দেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও শেরপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাবরিনা শারমিন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, উপজেলা ভবানীপুর বড়াইদহ গ্রামে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন করা হচ্ছিল। এমন সংবাদের ভিত্তিতে দ্রুত সেখানে গিয়ে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অবৈধভাবে মাটি উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত ভূমিদস্যু জুয়েলকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় মোজাফ্ফর নামের এক ব্যক্তিকে এক হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়। অপর একটি অভিযানে মির্জাপুর বাজার থেকে তিনটি অবৈধ স্থাপনা (দোকান ঘর) উচ্ছেদ করে পাঁচ শতাংশ সরকারি জায়গা উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালতকে  সহযোগিতা করেছেন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও শেরপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাবরিনা শারমিন বলেন, অবৈধভাবে মাটি ও বালু উত্তোলন বন্ধে উপজেলা প্রশাসন তৎপর রয়েছে। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।