ইসলামপুরে গোলাম আজম হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় কলেজ ছাত্র গোলাম আজম হত্যা মামলার মূল আসামি সাজু মিয়াকে (২৬) গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি।

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) দুপুর দেড়টায় জামালপুর শহরস্থ ব্যক্তি মালিকানায় নির্মাণাধীন ইউনাইটেড হাসপাতাল থেকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোলক চন্দ্র বসাকের নেতৃত্বে সিআইডির একদল সদস্য সাজু মিয়াকে গ্রেপ্তার করে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গত বছরের ২৫  এপ্রিল বিকালে উপজেলার গাইবান্ধা ইউনিয়নের নাপিতেরচর নতুন শাহপাড়া গ্রামে বকুল মণ্ডলের ছেলে গোলাম আজমকে প্রতিপক্ষরা পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। ওইদিন রাতে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত গোলাম আজম মাদারিপুর সরকারি কলেজে গণিত বিষয়ে অনার্সে পড়তো।

এ ঘটনার পরদিন ২৬ এপ্রিল নিহত গোলাম আজমের বাবা বকুল মণ্ডল বাদী হয়ে ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে ইসলামপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। ওই মামলায় সাজু মিয়াকে ২ নম্বর আসামি করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ইসলামপুর থানার এসআই আব্দুল হান্নান ৮ জনকে অব্যাহতি দিয়ে সাজু মিয়াসহ ২০ জনের বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

অব্যাহতি দেয়া ৮ জনকে মামলায় আসামি করতে ওই প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলার বাদি বকুল মন্ডল নারাজির আবেদন করেন। সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞ বিচারক জামালপুর সিআইডি পুলিশকে মামলাটি পুনরায় তদন্তের আদেশ দেন।

মামলার বাদী বকুল মণ্ডল জানান, 'আমার ছেলে গোলাম আজমের হত্যা মামলার মূল আসামী সাজু মিয়াকে সিআইডি পুলিশ গ্রেফতার করায় মামলার মূল আসামি গ্রেপ্তার হলো।

সাজু মিয়ার বাবা ফুলু মিয়া জানান, 'আমার ছেলে সাজু মিয়াকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মামলায় আসামি করা হয়েছে।

মামলা তদন্ত কর্মকর্তা জামালপুর সিআইডি পুলিশের পরিদর্ষক গোলক চন্দ্র বসাক জানান, 'আসামি সাজু মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলটির তদন্ত কার্যক্রম চলমান রয়েছে।'