রামেকে ২৪ ঘণ্টায় আরও ২০ জনের মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় আরও ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। 


সোমবার (১৯ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার (২০ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত সময়ের মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়।


এর আগের দিন এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ফলে রামেক হাসপাতালে আবারও মৃত্যু বেড়েছে।


মঙ্গলবার সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


তিনি জানান, নতুন করে মারা যাওয়া ২০ জনের মধ্যে চারজন করোনা পজিটিভ রোগী ছিলেন।


এছাড়া জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাকি ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার আগেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।


করোনা ইউনিটে মৃত ২০ জনের মধ্যে রাজশাহী জেলার আটজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের দু’জন, নাটোরের পাঁচজন, নওগাঁর দু’জন ও পাবনার তিনজন।


মৃত ২০ জনের মধ্যে ১২ জন পুরুষ ও আটজন নারী রয়েছেন। তাদের মধ্যে ২১-৩০ বছরের মধ্যে একজন নারী, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে তিনজন নারী, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে দুজন পুরুষ ও একজন নারী, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে চারজন পুরুষ ও তিনজন নারী এবং ষাটোর্ধ্ব ছয়জন পুরুষ ছিলেন। এ নিয়ে চলতি মাসে রামেক হাসপাতালে ৩৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত জুনে মারা গেছেন ৪০৫ জন।


হাসপাতালে করোনা ডেডিকেটেড শয্যা সংখ্যা মোট ৪৫৪টি। মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ভর্তি ছিলেন ৪৮০ জন। ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৬০ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭২ জন। হাসপাতালে করোনা পজিটিভ রোগীর সংখ্যা ২৩৮ জন।


এছাড়া করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি আছেন ১৭৪ জন। তবে করোনা নেগেটিভ হলেও এ সংক্রান্ত বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় কোভিড ইউনিটে ভর্তি ছিলেন আরও ৬৮ জন রোগী।


এদিকে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের হিসেব অনুযায়ী, রাজশাহীর দু’টি আরটি-পিসিআর মিলে মঙ্গলবার জেলায় মোট ৫৬১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে ১২৫ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।  


রাজশাহীতে বর্তমানে করোনা সংক্রমণের হার ২২ দশমিক ৯২ শতাংশ।