‘টিকটক’ ফারজানা গ্রেপ্তার

আট মামলার আসামি ছিনতাইকারী ফারজানা বেগম (২৭) ওরফে টিকটক ফারজানাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার মধ্যরাতে নগরীর ডবলমুরিং থানা পুলিশের অভিযানে আগ্রাবাদ এলাকা থেকে গ্রেফতার হন ফারজানা।

ফারজানার স্বামী রুবেল মাত্র ২ দিন আগে এলজি ও ছোরাসহ গ্রেপ্তার হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১১টি মামলা রয়েছে। তারা স্বামী-স্ত্রী মিলেই গড়ে তুলেছে ছিনতাই চক্র। নগরজুড়ে বেড়াচ্ছে ছিনতাই করে।

পুলিশ জানায়, ফারজানার ছিনতাইয়ের রয়েছে নানা কৌশল। এরমধ্যে একা চলাচলরত কোনো ছেলেকে প্রথমে টার্গেট করে। এরপর ঠিকানা জিজ্ঞাসা করার নামে তাকে থামায়। থামলেই ছোরা দেখিয়ে তার কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল দিয়ে দিতে বলে, অন্যথায় তার বিরুদ্ধে ইভটিজিং ও যৌন হয়রানির অভিযোগ আনার হুমকি দেয়। এতে ভয়ে সবকিছু দিয়ে দেয় ছেলেরা। আর মেয়েদেরও ঠিকানা জিজ্ঞাসা করার ভান করে থামায়। এরপর ছোরার ভয় দেখিয়ে সব ছিনিয়ে নেয়।

ডবলমুরিং থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন যুগান্তরকে বলেন, ফারজানা টিকটক ও লাইকি করে। টিকটক লাইকিতে ফারজানা সেলিব্রেটি। কিন্তু আমাদের কাছে সে একজন মোস্ট ওয়ান্টেড। দুর্ধর্ষ একজন ছিনতাইকারী। কিশোরদের নিয়ে তার নিজস্ব একটি ছিনতাইকারী দলও আছে। সে ছেলে ও মেয়েদের কাছ থেকে আলাদা কৌশলে ছিনতাই করে।