খুনি মোশতাকের বাড়ি ভাঙচুর

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী খন্দকার মোশতাকের বাড়ি দাউদকান্দি থেকে উচ্ছেদ এবং স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও অবস্থান ধর্মঘট পালিত হয়েছে। এ সময় তার বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর এবং বাড়ির সামনে অগ্নিসংযোগের ঘটনাও ঘটেছে।


মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টায় খন্দকার মোশতাকের বাড়ির সামনে দশপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে কুমিল্লা উত্তর জেলার ব্যানারে স্থানীয়রা এ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন।


বিশৃঙ্খলা এড়াতে এসময় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হলেও বিক্ষুব্দরা মোশতাকের বাড়িতে হামলা করে ইট পাটকেল ছুড়ে দরজা জানালা ভাঙচুর করে। পরে নেতারা সেখানেই মোশতাকের প্রতিকৃতিতে জুতা ও থুথু নিক্ষেপ এবং কুশপুত্তলিকা পুড়িয়ে ঘৃনা জানান।  


অবিলম্বে দাউদকান্দি তথা কুমিল্লার মাটি থেকে খুনি মোস্তাকের বাড়ি ও কবর অপসারণ এবং সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের দাবি জানিয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী সুমন বলেন, কুলাঙ্গার খুনি মোশতাকের মতো এতো বড় বেঈমান ও বিশ্বাসঘাতক আর আছে বলে আমার জানা নেই। তাই খুনি মোশতাকের কলঙ্কভার আমরা আর বহন করতে চাই না। এ লজ্জা থেকে দাউদকান্দি তথা কুমিল্লাবাসী পরিত্রাণ চাই।


এ সময় আরো বক্তব্য দেন- কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার বাসুদেব ঘোষ, দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডাভোকেট আহসান হাবিব চৌধুরী লিল মিয়া, দাউদকান্দি পৌরসভার মেয়র নাইম ইউসুফ সেইন, মেঘনা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, কুমিল্লা উত্তর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক বাহাউদ্দিন বাহার, যুগ্ম আহ্বায়ক সারোয়ার হোসেন বাবু প্রমুখ।