বগুড়ায় রাজাকারপুত্রকে নৌকা দেয়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ

বগুড়া সোনাতলা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মেয়র পদে ইউনিয়ন পিচ কমিটির সভাপতি শামসুল হক খানের ছেলে শহীদুল বারী খাঁন রব্বানীকে মনোনয়ন দেয়ার প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন বীর মুক্তিযোদ্ধারা।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তারা এ প্রতিবাদ জানান।
 
বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে লিয়াকত আলী তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, আওয়ামী লীগ সোনাতলা পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে শান্তি কমিটির সভাপতির ছেলে শাহীদুল বারী খাঁন রব্বানীকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেয়ায় আমরা ব্যথিত। মুক্তিযুদ্ধ চালাকালীন তৎকালীন শান্তি কমিটির সভাপতি বিভিন্ন মানুষের ঘরবাড়ী পুড়িয়ে দেয়া , নারী ধর্ষণ, বাড়ী লুন্ঠনসহ নানাবিধ অপকর্মের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তার এহেন কর্মকান্ডগুলো শুধু সোনাতলাতেই সীমাবদ্ধ ছিল না তা বগুড়া জেলার অনেক অঞ্চলেই এই শান্তি কমিটির সভাপতি স্বাধীনতা বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল।

লিয়াকত আলী আরও বলেন, সোনাতলা ইউনিয়ন শান্তি কমিটির সভাপতির ছেলে রব্বানীকে সমর্থন দিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মিনহাদুজ্জামান লিটন ও অধ্যক্ষ আব্দুল মালেক সংবাদ সম্মেলন করায় তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এছাড়া এহেন ঘৃণিত রাজাকার পরিবারগুলোকে আওয়ামী লীগের রাজনীতি থেকে অতি দ্রুত বহিস্কার করে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের ব্যক্তিকে মনোনীত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কাননা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে আলতাফ হোসেন বুলু, মহসীন আলী, মোজাম্মেল হক, হেলাল, এ এম এম মুসা, আব্দুর রশিদ, আব্দুর রাজ্জাক, আবছার আলী, আব্দুল খালেক, হাবিবুর, ইউনুছ আলী এবং সিরাসজুল ইসলাম খাঁন উপস্থিত ছিলেন।