সিসিকের মহিলা কাউন্সিলরের বাসায় বোমা হামলা

সিলেট সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরের বাসায় হামলা ও বোমা নিক্ষেপের খবর পাওয়া গেছে। এতে একজন আহত হয়েছে।


ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার (১৫ জানুয়ারী) বেলা ১টার দিকে। সিলেট নররীরর ১৩ নং ওয়ার্ডের খুলিয়াপাড়ার ৫২/৫নং বাসায় এ হামলার ঘটনা ঘটেছে।


জানা যায়, সিলেটে সিসিকের ১৩,১৪,১৫ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত কাউন্সিলর শাহানা বেগম নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি তার ভাসুর নুরুল ইসলাম এর বাসায় দীর্ঘন ধরে চুক্তিতে বসবাস করে আসছেন। শনিবার দুপুরে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে বাসার সামনে পেট্রল বোমা ফাটিয়ে অগ্নিসংযোগ করে এবং দায়ের  কোপে একজনের হাতের আঙ্গুগুলের মাথা কেটে ফেলে। খবর পেয়ে লামাবাজার ফাঁড়ির একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।


সূত্রে জানা যায়, বাসার মূল মালিক নুরুল ইসলামের সাথে হেতিমগঞ্জের কয়েকজন লোকের সঙ্গে বাসা বিক্রির বিষয় নিয়ে বিরোধ রয়েছে। এরই জের ধরে শনিবার দুপুরে ৩০-৩৫ জনের একদল দুর্বৃত্ত বাসায় হামলা চালায়। দু'তলা বাসার উপরের তলায় কাউন্সিলর শানু ও নিচ তলায় রাকিব নামে একজন পরিবার নিয়ে থাকেন। হামলার সময় তারা বাসার মূল ফটক লাগিয়ে দিতে চাইলে হামলাকারীরা দা দিয়ে আঘাত করেন। এসময় রাকিব নামের ওই ব্যক্তির আঙ্গুগুলের মাথায় কোপ পড়ে। বাসার ভেতরে হামলাকারীরা ঢুকতে না পেরে বোমা ফাটিয়ে টায়ারে অগ্নিসংযোগ করে। পুলিশ আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।


কাউন্সিলর শানুর ভাসুর ও বাসার মূল মালিক নুরুল ইসলাম জানান, বছর খানেক আগে হেতিমগঞ্জের  লোকমান নামে এক ব্যক্তি আমার বাসাটি ক্রয় করবে বলে ৬৫ লাখ টাকা দাম চূড়ান্ত করে। ৫ মাস আগে ১৫ লাখ দিয়ে একটি বায়নামাপত্র করে। কিন্তু এরপর আর আমার সঙ্গে যোগাযোগ না করে একটি ভুয়া দলিল করে আজ হঠাৎ করে ৩০-৩৫ জন লোক নিয়ে বাসাটি জোর করে দখল করতে চলে আসে এবং হামলা চালায়। এই ভুয়া দলিলের বিষয়টি আমি সম্প্রতি জানতে পেরেছি। এ বিষয়ে আমি আগামীকালই (রবিবার) আদালতে মামলা করবো।