সেতু নেই, শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে পার হচ্ছে সাঁকো

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে একটি পুলের অভাবে শত শত শিক্ষার্থীসহ হাজারো মানুষ ঝুঁকি নিয়ে পার হচ্ছে বাঁশের সাঁকো। জনগুরুত্বপূর্ণ এ সেতুটি নির্মাণে কোন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না বলে দাবি এলাকাবাসীর।


উপজেলার ৫নং রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের গড়ঘাটা ও কুমারখালী খালের উপরের এ বাঁশের সাঁকোটির অবস্থান। এ পুল দিয়ে দীর্ঘ ৮-১০ বছর যাবৎ স্কুল-মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে। ইতোপূর্বে এখানে একটি কাঠের পুল থাকলে তার অস্তিত্ব বলতে কয়েকটি লোহার খাম্বা দৃশ্যমান রয়েছে। 


সাঁকোটির পশ্চিম পার্শ্বে  রয়েছে পার কুমারখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় , ৩০ নং পার কুমারখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দাখিল মাদ্রাসা, বাজার সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।


পার কুমারখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় শিক্ষক একরামুল কবির বলেন, এ বাঁশের সাঁকো দিয়ে প্রতিদিন কমপক্ষে ২ শতাধিক শিক্ষার্থী যাতায়াত করে। যেকোন মুহূর্তে দুর্ঘটনার আশঙ্কায় অনেক শিক্ষার্থী  সাঁকো দিয়ে পারাপার হতে চায় না। 


কুমারখালীর ইউপি সদস্য প্রিন্স হোসেন ও গড়ঘাটার ইউপি সদস্য মো. হাসিব শেখ জানান, জোড়া তালির মাধ্যমে সাঁকোটি চলাচলের জন্য সচল রাখা হয়েছে। পুননির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।


এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম জানান, সরকারি বরাদ্ধ পেলে পুলটি নির্মাণে পদক্ষেপ নেয়া হবে।