আশুরা মানে নিপীড়কের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ করা: ন্যাপ

বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, আশুরার আত্মত্যাগ মানে ‘জবরদস্তি, মিথ্যা অহংকার ও আত্মসম্মানহীন নিপীড়কের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ করা।’


সোমবার (৮ আগস্ট) ১০ মহররম পবিত্র আশুরা উপলক্ষে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বাণীতে তারা এসব কথা বলেন।


তারা হযরত ইমাম হুসাইন (রা.)'র পবিত্র স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, বিশ্ব নবী (সা.) এর প্রিয় দৌহিত্র হযরত ইমাম হোসেন (রা.) এর শাহাদাত বিশ্ব মুসলিমসহ সারা মানবজাতিকে শোক ও বেদনায় স্তব্ধ করে দেয়।


নেতৃদ্বয় বলেন, কারবালায় ইমাম হুসাইন (রা.) সেই অনুকরণীয় দৃষ্টান্তই স্থাপন করেছেন তার আত্মদানের মধ্য দিয়ে। পবিত্র আশুরা বিশ্ব মুসলিম সম্প্রদায়ের সামনে শোক, শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় মোড়ানো এক ব্যথাতুর ইতিহাস। আশুরা আমাদের সত্য ও ন্যায়ের পথে অবিচল থাকতে অনুপ্রেরণা যোগায়।


তারা আরো বলেন, ত্যাগ ও শোকের প্রতীক পবিত্র আশুরা আমাদের উদ্বুদ্ধ করে অন্যায় ও অসত্যের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক সংগ্রাম করতে। ইসলামের সুমহান আদর্শ সমুন্নত রাখতে কারবালার ত্যাগ সমুজ্জ্বল হয়ে আছে।


ন্যাপের দুই শীর্ষনেতা বলেন, পবিত্র আশুরা অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হতে শিক্ষা দেয়। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ভাষায়, “ফিরে এলো আজ সেই মহররম মাহিনা/ ত্যাগ চাই, মর্সিয়া ক্রন্দন চাহি না।” আশুরার চেতনা জাতীয় জীবনে প্রতিফলিত হোক এবং সমাজ থেকে অন্যায়-অবিচার, জুলুম-নির্যাতনসহ সব অনাচার দূর হয়ে বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হোক।