বিজেপি সভাপতির উপর চটেছেন রূপাঞ্জনা

একটি সাক্ষাৎকারে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করেছেন,’অভিনয় ছেড়ে রাজনীতিতে এলে রগড়ে দেব।’ তার এই বক্তব্যতে অত্যন্ত বিরক্ত এবং ক্ষুব্ধ হয়েছেন বিজেপিতে যোগদান করা অভিনেতা ও অভিনেত্রীরা।

রূপাঞ্জনা মিত্র দিলীপ ঘোষের এই বক্তব্যকে নিশানা করে তিনি কার ফেসবুক পেজে লিখলেন, আজ শিল্পী হয়ে নিজেকে খুব ছোট মনে হচ্ছে। রং মাখি বলে আমাদের এভাবে অপমান করা হবে? ‘রগড়ে’ দেওয়া হবে আমাদের পরিশ্রম। আমাদের নিজেদের কাজের প্রতি সততা নিষ্ঠাকে অসম্মান করা হবে? না ন্যাকামি করছি না। আমার বিজেপি কর্মী-শিল্পীদেরও বলছি, কাপুরুষ হবেন না। সবকিছুর সীমা রয়েছে! আমি এইরকম অসম্মানজনক আচরণকে সমর্থন করি না।

এর পাশাপাশি রূপাঞ্জনা আরেকটি সর্ব ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, তিনি দিলীপ ঘোষের লড়াইকে সমর্থন জানান কিন্তু যারা দলে থেকে শিরদাঁড়া না বেঁকিয়ে পরিশ্রম করে কাজ করে যাচ্ছে তাদেরকে অসম্মান করাকে তিনি কোনোভাবেই প্রশ্রয় দেবেন না।

অন্যদিকে আবির চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী নন্দিনী চট্টোপাধ্যায় এ প্রসঙ্গে লেখেন, বাংলা চলচ্চিত্র ও মিউজিক ফ্র্যাটারনিটির বিজেপি দলের সদস্য এবং সমর্থকরা, দয়া করে আপনার শ্রদ্ধেয় নেতা শ্রী দিলীপ ঘোষের এই বক্তব্যটি ব্যাখ্যা করতে পারেন ?

প্রথম সারির অভিনেতা অভিনেত্রী থেকে টেলিপাড়ার কিছু মুখ এ বছর যোগ দিয়েছে গেরুয়া শিবিরে। রুদ্রনীল ঘোষ, পায়েল সরকার, তনুশ্রী চক্রবর্তী, শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, যশ দাশগুপ্ত আর চেরি অন দ্য টপ, মিঠুন চক্রবর্তী। কিন্তু এর আগেই যারা বিজেপিতে যোগদান করেছিল তাদের তালিকায় ছিলেন পার্নো মিত্র, রূপাঞ্জনা মিত্র মতন জনপ্রিয় অভিনেত্রীরা।