বাংলাদেশ-মমতা নিয়ে টুইট, সাসপেন্ড কঙ্গনার অ্যাকাউন্ট

একের পর এক বিতর্কিত টুইট করে অ্যাকাউন্ট খোয়ালেন কঙ্গনা রানাওয়াত।

মোদির কট্টর ভক্ত হিসেবে পরিচিত নায়িকা প্রায়ই টুইটারকে হাতিয়ার করে নিশানা করেন বিভিন্নজনকে। বাদ যায়নি বিনোদন জগত থেকে শুরু করে রাজনীতিবিদরাও।

তবে মঙ্গলবার দুপুরের দিকে হঠাৎই কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করে দেওয়া হয়েছে। এর কারণ পরিষ্কার জানা না গেলেও মনে করা হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে করা তার শেষ টুইট এর জন্য দায়ী।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্তর টুইটে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কঙ্গনা তার টুইটে লিখেছিলেন, ‘এটা ভয়ঙ্কর… গুন্ডাইকে মেরে ফেলার জন্য আমাদের সুপার গুন্ডাইয়ের প্রয়োজন… তিনি অব্যক্ত দানবের মতো, তাকে দমন করার জন্য দয়া করে ২০০০ সালের প্রথম দিকের বিরাট রূপটা দেখান মোদিজি… #PresidentRuleInBengal।’

২ মে বাংলায় ভোটের ফলাফল সামনে আসার পর কঙ্গনা টুইট করেছিলেন, ‘বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে বড় শক্তি… যা ট্রেন্ড দেখছি তাতে বাংলায় আর হিন্দুরা সংখ্যাগরিষ্ঠ নেই এবং তথ্য অনুযায়ী গোটা ভারতের অন্য এলাকার তুলনায় বাংলার মুসলিমরা সবচেয়ে গরিব আর বঞ্চিত। ভালো আরেকটা কাশ্মির তৈরি হচ্ছে।’

আর এসবের পরই সাসপেন্ড হলো তার অ্যাকাউন্ট। তবে কতদিনের জন্য সাসপেন্ড হয়েছে তা জানা যায়নি।