ভাতের মাড়ের এই অবিশ্বাস্য গুণগুলির কথা জানেন?

ভাতের মাড় সাধারণত ফেলে দেওয়া হয়। তবে বিজ্ঞানীরা বলে থাকেন, ভাতের মাড়ে যে পুষ্টি উপাদান আছে তা অনেক ফলেও নেই। তবে শুধু পুষ্টি গুণই নয়, ভাতের মাড় ব্যবহার করা যায় সৌন্দর্য্য চর্চাতেও।

ভাতের মাড় স্নানের পানিতে মিশিয়ে দিনে অন্তত ২ বার স্নান করুন। ত্বকের জ্বালা ভাব, চুলকানি, র‍্যাশ থেকে মুক্তি পাবেন।

ভাতের মাড় ঠান্ডা করে তুলো দিয়ে ত্বকের ব্রণ আক্রান্ত অংশে লাগান। দিনে অন্তত ২-৩ বার এই ভাবে লাগাতে পারলে ব্রণ-ফুসকুড়ির মতো সমস্যা সেরে যাবে।

ভাতের মাড় ঠান্ডা করে তুলো দিয়ে মুখের ও হাত-পায়ের রোদে পোড়া অংশে নিয়মিত মাখতে পারলে বাড়বে ত্বকের জেল্লা।

শ্যাম্পু করার পর চুলে ভাতের মাড় দিয়ে মিনিট তিনেক রেখে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। চুলের ডগা ফেটে যাওয়ার মতো সমস্যার মিটে যাবে।

ভাতের মার চুলে লাগালে খুসকি থেকেও মুক্তি পাবেন সহজে। চুল পড়াও কমবে।